২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সোলাইমানিকে হত্যাকারী সিআইএ অফিসার আফগানিস্তানে নিহত!

জেনারেল সোলাইমানি, ইনসেটে মাইকেল ডি আন্দ্রেয়াস - ছবি : সংগ্রহ

আফগানিস্তানে বিমান দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন বিখ্যাত ইরানি কমান্ডার কাশেম সোলেমানি হত্যার হোতা এক শীর্ষ সিআইএ কর্মকর্তা। জল্পনা উসকে মঙ্গলবার এমনটাই দাবি করেছে ইরান। বেশ কয়েকটি সংবাদ সংস্থা খবরটি প্রকাশ করেছে।

তেহরানের দাবি, ‘কুদস ফোর্স’-এর জেনারেল সোলাইমানির হত্যার ‘ব্লু-প্রিন্ট’ তৈরি করেছিলেন মাইকেল ডি আন্দ্রেয়াস। মার্কিন গুপ্তচর সংস্থা সিআইএ-এর এই শীর্ষ কর্মকর্তাই গোটা অপারেশন নিয়ন্ত্রণ করেছিলেন। গত সোমবার আফগানিস্তানের গজনি প্রদেশে মার্কিন সামরিক বাহিনীর এক বিমান ভেঙে পড়ে। ওই ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে আন্দ্রেয়াসের। ইরানের দাবিকে সমর্থন জানিয়েছে রুশ গোয়েন্দা বিভাগও। এদিকে, এই বিতর্কে এখন পর্যন্ত কোনো বিবৃতি দেয়নি ওয়াশিংটন।

সংবাদ সংস্থা সিএনএন সূত্রে খবর, বিমানটির ধ্বংসাবশেষ থেকে দুই যাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। যদিও তাদের পরিচয় জানায়নি পেন্টাগন। তাৎপর্যপূর্ণভাবে একসঙ্গে দু’টি বিমান ভেঙে পড়েছিল বলে দাবি করেছে তালেবান। তবে এই দাবি উড়িয়ে দিয়েছে মার্কিন সেনাবাহিনী। সূত্রের খবর, সোমবার ভেঙে পড়া বিমানটি ছিল E-11A। এটি মূলত সংযোগ স্থাপনকারী বিমান। আফগানিস্তানের প্রত্যন্ত এলাকায় এই বিমানের মাধ্যমেই যোগাযোগ চালায় মার্কিন সেনা।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের শুরু দিকেই বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে হামলা চালিয়ে ইরানের শীর্ষ সামরিক কর্তা কাশেম সোলেমানি-সহ আটজনকে হত্যা করেছে আমেরিকা। তারপর থেকেই মধ্যপ্রাচ্যে আরো জটিল হয়ে উঠছে পরিস্থিতি। এই ঘটনায় ওয়াশিংটনের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন ইরাকের প্রধানমন্ত্রী আদেল আবদুল মাহদি। ইরাকের সার্বভৌমত্বের উপর প্রশ্ন তুলেছে আমেরিকা বলেও অভিযোগ জানান তিনি।

আমেরিকাকে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনেই। আমেরিকাকে এর মূল্য চোকাতে দিতে হবে বলে হুমকি দিয়েছিলেন খামেনেই। বাড়তে থাকা উত্তেজনার ফলে ইরাক, কুয়েত-সহ মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য এলাকায় অতিরিক্ত ৩ হাজার ৫০ সেনা মোতায়েন করেছে আমেরিকা। এই মুহূর্তে কার্যত বারুদের স্তূপের উপর রয়েছে গোটা অঞ্চলটি। ফলে যেকোনো মুহূর্তে প্রবল বিস্ফোরণ ঘটতে পারে মধ্যপ্রাচ্যে।
সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন


আরো সংবাদ