২১ আগস্ট ২০১৯

এভারেস্টের বরফ গলে বেরিয়ে আসছে লাশ

বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্ট জয় করা সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। এর চূড়ায় উঠতে গিয়ে প্রায় ৩০০ পর্বতারোহীর মৃত্যু হয়েছে। এভারেস্টের বরফ গলে এখন সেই লাশগুলোই বেরিয়ে আসছে একের পর এক। বিবিসি।

দ্রুতহারে বরফ গলে গিয়ে এ বিপুলসংখ্যক লাশ বের হতে দেখে যেমন উদ্বেগ বাড়ছে, তেমনি এ লাশগুলো উদ্ধার করতেও হিমশিম খাচ্ছেন উদ্ধারকর্মীরা।

এভারেস্টে প্রথম আরোহণের চেষ্টা শুরু হওয়া থেকে এ পর্যন্ত মারা যাওয়া প্রায় ৩০০ পর্বতারোহীর সবার লাশ উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। দুই-তৃতীয়াংশ লাশই বরফের নিচে চাপা পড়ে আছে বলে ধারণা করা হয়। সে লাশগুলোই এখন বেরিয়ে আসছে। সবচেয়ে বেশি লাশ বেরিয়ে আসছে নেপালের অংশের খুম্বু হিমবাহ গলে।এ ছাড়া, ‘সাউথ কোল’ এও লাশ দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।

পর্বতের চীনা অংশ দিয়ে উত্তরে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে পর্বতারোহীদের এ লাশহগুলো। বিবিসি জানায়, পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বিশ্বের সর্বোচ্চ এ শৃঙ্গটি এ পর্যন্ত চার হাজার ৮০০-এর বেশি পর্বতারোহী জয় করতে পেরেছেন।

কিন্তু পর্বতের বিপজ্জনক পথ অতিক্রম করতে গিয়ে মাঝপথে বা শেষপথে বহু পর্বতারোহীই প্রাণ হারান। নেপালের মাউন্টেনিয়ারিং অ্যাসোসিয়েশনের (এনএমএ) সাবেক সভাপতি আং শেরিং শেরপা বলেছেন, ‘বিশ্ব উষ্ণায়নের কারণে হিমবাহের বরফের স্তর দ্রুত গলে যাচ্ছে। আর এতেই বছরের পর বছর ধরে হিমবাহের নিচে চাপা পড়ে থাকা লাশগুলো বেরিয়ে আসছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা সম্প্রতি কয়েক বছরে মারা যাওয়া পর্বতারোহীদের লাশ উদ্ধার করতে পেরেছি। কিন্তু পুরনো যে লাশগুলো বরফের নিচে চাপা পড়েছিল সেগুলো এখন বেরিয়ে আসছে।’ এভারেস্ট অভিযানের সমন্বয়ক এক সরকারি কর্মকর্তা বলেন, তিনি নিজে সম্প্রতি কয়েক বছরে বিভিন্ন স্থান থেকে প্রায় ১০ টি লাশ উদ্ধার করেছেন। এখন আরো বেশি দেহ চোখে পড়ছে।

লাশগুলো সরানো মোটেও সহজ হচ্ছে না বলে মন্তব্য করেছেন নেপালের এক্সপেডিশন অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন (ইওএএন) এর কর্মকর্তারা। বিবিসিকে এক কর্মকর্তা বলেছেন, ‘গত কয়েক বছরে বেস ক্যাম্পেও মৃত পর্বতারোহীদের হাত, পা দেখা গেছে। এখন আমরা দেখছি বেস ক্যাম্পের চারপাশে বরফের স্তর নিচে নেমে গেছে। আর সে কারণে এখন দেহগুলোও দেখা যাচ্ছে।’

হিমালয়ের বেশির ভাগ অংশেই যে বহু হিমবাহ দ্রুত গলে যাচ্ছে এবং বরফের স্তর পাতলা হয়ে যাচ্ছে, এমন তথ্য উঠে এসেছে বেশ কয়েকটি গবেষণায়। একের পর এক পর্বতারোহীর লাশ বেরিয়ে এসে এখন গবেষণার এ ফলকেই সত্য প্রমাণ করেছে।


আরো সংবাদ

ভয়াবহ গ্রেনেড হামলার ১৫তম বার্ষির্কী সীমান্তে পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে ৬ ভারতীয় সেনা নিহত শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ মোদির বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে গ্রেনেড হামলার ১৫তম বার্ষিকী আজ বিএনপির লক্ষ্য সপ্তম কাউন্সিল নেতাকর্মীদের হতাশার বৃত্ত থেকে বের করে আনার চেষ্টা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকসহ আরো ৫ জনের মৃত্যু দ্রুত অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত না হওয়ায় ধর্ষণ বেড়েছে : হাইকোর্ট অরক্ষিত কমলাপুর রেলস্টেশন : খুনের বিষয় জানেন না ডিজি ট্রেনে আসমাকে হত্যার আগে ধর্ষণ করা হয় ডেঙ্গু নিয়ে চ্যালেঞ্জের মুখে মন্ত্রী-এমপিরা রিফাত হত্যা মিন্নিকে কেন জামিন দেয়া হবে না : হাইকোর্টের রুল এসপিকে ব্যাখ্যা দেয়ার ও তদন্ত কর্মকর্তাকে হাজির হওয়ার নির্দেশ একনেক সভায় প্রধানমন্ত্রীর জিজ্ঞাসা এক প্রকল্পের টাকা নষ্ট করা ইঞ্জিনিয়ার আরেক প্রকল্পে কিভাবে থাকে

সকল