১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মিয়ানমারের ফাঁদে পা দিয়ে কূটনীতিতে দেশ পিছিয়ে পড়ছে : নূর হোসাইন কাসেমী

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী - ফাইল ছবি

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেছেন, রোহিঙ্গাদের আস্থাশীল হওয়ার মতো পরিবেশ নিশ্চিত করা ছাড়া বারবার প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া ব্যর্থ হওয়াটা হতাশাজনক। এতে মিয়ানমারের পাতা ফাঁদে পা দিয়ে কূটনীতিতে বাংলাদেশ পিছিয়ে পড়ছে।

গতকাল শুক্রবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ইস্যুতে এক দিকে মিয়ানমার প্রতারণা ও ছলচাতুরি করছে, অন্য দিকে বিশ্ব সম্প্রদায় কার্যকর উদ্যোগের পরিবর্তে পিঠ চাপড়িয়ে বাংলাদেশকে মোহগ্রস্ত রাখতে চাচ্ছে। পূর্ণ নাগরিকত্ব, নিরাপত্তা, বাড়িঘর ও সহায়সম্পদ ফেরত এবং স্বাধীনভাবে চলাচলের অধিকার দেয়ার নিশ্চয়তা দিয়েই মিয়ানমার বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে হবে। পাশাপাশি প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় জাতিসঙ্ঘের মধ্যস্থতা ও উপস্থিতি এবং ফিরে যাওয়ার পরও রোহিঙ্গাদের সাথে কেমন আচরণ করা হচ্ছে, সেই তদারকির সুযোগ থাকতে হবে। এসব দাবি পূরণে মিয়ানমারের কোনো টালবাহানা, গড়িমসি ও দায় এড়ানোর সুযোগ নেই। বাংলাদেশ সরকারকে এ বিষয়ে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টিতে জোরালো কূটনৈতিক তৎপরতা বাড়াতে হবে।

তিনি আরো বলেছেন, নিপীড়ন ও নির্যাতনের শিকার হয়ে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের বৈধ নাগরিক। তারা পূর্বপুরুষ থেকে মিয়ানমারে বসবাস করে আসছে। তাদের ষড়যন্ত্র করে সম্পূর্ণ অন্যায় ও জুলুমের শিকারে পরিণত করে দেশছাড়া করা হয়েছে। বাংলাদেশ মানবতার জায়গা থেকে বাস্তুচ্যুত লাখ লাখ অসহায় রোহিঙ্গা শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়ে মানবিকতার নজির স্থাপন করেছে। বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ