২৩ জুলাই ২০১৯

ভূমধ্যসাগরে এক বাংলাদেশী নিহত, ৩৯ নিখোঁজ : মোমেন

-

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, ভূমধ্যসাগরে অভিবাসীবাহী নৌযানডুবিতে নিহত একজন বাংলাদেশী বলে শনাক্ত করা হয়েছে এবং আরো ৩৯ বাংলাদেশী নাগরিক নিখোঁজ রয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। গতকাল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বলেন, ‘আমাদের কর্মকর্তারা এ পর্যন্ত নিহত একজন বাংলাদেশী বলে শনাক্ত করেছেন এবং আরো ৩৯ বাংলাদেশী নাগরিক নিখোঁজ রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন।’
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে তিউনিসিয়ায় অবস্থানরত লিবিয়ার বাংলাদেশ মিশনের কর্মকর্তারা ডুবে যাওয়া নৌযানের উদ্ধার হওয়া যাত্রীদের সাথে কথা বলে নিহত ও নিখোঁজ বাংলাদেশীদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করেছেন। মোমেন বলেন, ‘এ পর্যন্ত নিহত একজন বাংলাদেশী বলে শনাক্ত হয়েছেন। তার নাম উত্তম দাস। তার বাড়ি শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায়। তিনি জানান, নৌকাডুবির পর তিউনিসিয়ার জেলেদের উদ্ধার করা ১৬ জনের মধ্যে ১৪ জনই বাংলাদেশী। তাদের মধ্যে চারজন মারাত্মক আহত অবস্থায় তিউনিসিয়ার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অন্য ১৪ জন সেখানে রেড ক্রিসেন্টের ক্যাম্পে অবস্থান করছেন। আবদুল মোমেন বলেন, আমাদের কর্মকর্তারা নিখোঁজদের সম্পর্কে আরো তথ্য সংগ্রহে কাজ করছেন। ‘ঠিক কতজন বাংলাদেশী নিখোঁজ রয়েছেন তা এখনো অনিশ্চিত।’
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ১৩০ জন বাংলাদেশীসহ ১৫০ জন অভিবাসীকে নিয়ে একটি বড় নৌযান বৃহস্পতিবার রাতে লিবিয়ার উত্তর-পশ্চিম উপকূলীয় জুওয়ারা ছেড়ে যায়। পরে তাদের দু’টি ছোট নৌযানে তোলা হয়। এর মধ্যে একটি ইতালি উপকূলে পৌঁছলেও দ্বিতীয়টি ৭০-৮০ জন যাত্রী নিয়ে তিউনিসিয়ার অদূরে ডুবে যায়।
তিনি বলেন, বেঁচে যাওয়াদের তথ্য মতে তাদের জোর করে ছোট নৌযানে তোলা হয়। কেউ কেউ ছোট নৌযানে উঠতে আপত্তি করলে তাদের এমনকি শারীরিক নির্যাতন করা হয়।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তিউনিসিয়ায় যখনই পাওয়া যাক, বাংলাদেশ সরকার বাংলাদেশী নাগরিকদের মৃতদেহ দেশে নিয়ে আসবে। তিনি বলেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ইতোমধ্যে অবৈধভাবে ইতালি যেতে প্ররোচণা দানকারী এখানকার মানবপাচারচক্রগুলো শনাক্ত করতে কাজ শুরু করেছে। ইতোমধ্যে সিলেটে ২৩টি প্রতারক ট্রাভেল এজেন্সিকে মানবপাচারে জড়িত থাকার সন্দেহে সিল করে দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া নোয়াখালীর তিন ভাইয়ের একটি সিন্ডিকেট এ অভিবাসীদের কয়েকজনকে পাঠানোর জন্য দায়ী বলে শনাক্ত করা হয়েছে।


আরো সংবাদ