১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বিমানবন্দরে দুই যাত্রীর কাছ থেকে স্বর্ণের বার ও বিদেশী ওষুধ জব্দ

-

ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৃথক ঘটনায় জুয়েল ও সোলায়মান নামে দুই যাত্রীর কাছ থেকে ১০ পিস স্বর্ণের বার উদ্ধার করেছে ঢাকা কাস্টমস হাউজের প্রিভেন্টিভ টিম। জব্দ করা স্বর্ণের বাজার মূল্য প্রায় ৫০ লাখ টাকা। গত মঙ্গলবার রাতে বিমানবন্দরে যাত্রীদের শরীর তল্লাশি করে এসব স্বর্ণ জব্দ করা হয়।
অন্য দিকে গতকাল বুধবার সকালে বিমানবন্দরে ৫০ লাখ টাকার বিদেশী ওষুধসহ এক যাত্রীকে আটক করা হয়েছে।
ঢাকা কাস্টমস হাউজের সহকারী কমিশনার মো: সাজ্জাদ হোসেন জানান, গত মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে ব্যাংকক থেকে চট্টগ্রাম হয়ে রিজেন্ট এয়ারওয়েজের (আরএক্স-৭৮৭) উড়োজাহাজটি হজরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করে। ওই বিমানের যাত্রী ছিলেন জুয়েল। যাত্রীদের শরীর তল্লাশি করার একপর্যায়ে কাস্টমস কর্মকর্তারা যাত্রী জুয়েলকে চ্যালেঞ্জ করে। জুয়েল তার কাছে স্বর্ণের বার থাকার কথা অস্বীকার করেন। পরে তার শরীরের রেক্টামের ভেতর থেকে ১০ তোলা ওজনের ৮ পিস স্বর্ণের বার উদ্বার করা হয়; যার ওজন ৭৯৯ গ্রাম।
এ দিকে একই রাত ১১টার দিকে রিজেন্ট এয়ারওয়েজের (আরএক্স-৭৮৩) নম্বরের উড়োজাহাজযোগে মালয়েশিয়া থেকে ঢাকায় আসেন সোলায়মান নামে এক যাত্রী। বিমানবন্দরে নামার পর যাত্রী সোলায়মান গ্রিন চ্যানেল অতিক্রমের পরে কাস্টমস কর্মকর্তারা তাকে চ্যালেঞ্জ করেন। তিনিও অস্বীকার করেন। পরে তার শরীরের গোপন স্থানে লুকানো ২ পিস স্বর্ণের বারের কথা স্বীকার করেন; যার ওজন ২৩৫ গ্রাম। মোট উদ্ধারকৃত ১০ পিস স্বর্ণের বারের আনুমানিক দাম ৫০ লাখ টাকা।
৫০ লাখ টাকার বিদেশী ওষুধ জব্দ
হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রায় ৫০ লাখ টাকার বিদেশী ওষুধসহ এক যাত্রীকে আটক করেছেন কাস্টমস কর্মকর্তারা। আটককৃত যাত্রীর নাম মো: আসাদ। গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
ঢাকা কাস্টমস হাউজের সহকারী কমিশনার মো: সাজ্জাদ হোসেন জানান, গতকাল বুধবার সকালে সৌদি আরবের জেদ্দা থেকে আসা সৌদি এয়ারলাইন্সের (এসভি-৮০২) ফ্লাইটটি ঢাকায় অবতরণ করে। বিমানের ওই যাত্রী ছিলেন মো: আসাদ। আসাদ বিমানবন্দরে নেমে তড়িঘড়ি করে গ্রিন চ্যানেল অতিক্রমের পর কাস্টম কর্মকর্তারা তাকে চ্যালেঞ্জ করে। এ সময় তার কাছে কিছু নেই বলে জানান। পরে তার লাগেজ তল্লাশি করে এক লাখ ৩২ হাজার পিস বিদেশী ওষুধ পাওয়া যায়।


আরো সংবাদ