১৮ অক্টোবর ২০১৯
ঢাবি সাদা দলের শিক্ষকদের মৌন অবস্থান

আবরারকে পিটিয়ে হত্যায় আমরা লজ্জিত

-

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের দ্রুত বিচার ও দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে মৌন অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল। গতকাল বুধবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে শিক্ষকরা এই কর্মসূচি পালন করেন। এ সময় শিক্ষকরা মুখে কালো কাপড় বেঁধে আবরার হত্যার তীব্র প্রতিবাদ জানান। সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. এ বি এম ওবায়দুল ইসলামের সভাপতিত্বে মৌন অবস্থান কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন সাদা দলের যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান ও অধ্যাপক ড. মোর্শেদ হাসান খান, সাদা দলের শিক্ষক নেতা অধ্যাপক ড. আখতার হোসেন খান, অধ্যাপক ড. সিরাজুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খান, ড. আব্দুল করিম, ড. মো: মহিউদ্দিন, আতাউর রহমান বিশ্বাস, মো: আল আমিন, মো: নূরুল আমিন, মো: সাইফুল্লাহসহ অর্ধশতাধিক শিক্ষক।
সভাপতির বক্তব্যে সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. এ বি এম ওবায়দুল ইসলাম বলেন, আবরারের হত্যায় আমরা স্তম্ভিত। গোটা জাতি আজ হতবাক। বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরারকে পাঁচ ঘণ্টা পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ জন্য আমরা লজ্জিত।
থতিনি বথলেন, আমাদের একটা ছেলেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা রক্ষার জন্য আজকে তার জীবন দিতে হয়েছে। আমরা মনে করি এ জীবন হচ্ছে স্বাধীনতার জন্য। আমরা বিশ্বাস করি আবরার শহীদের মর্যাদা পাবে। আমরা শহীদ আবরার হত্যার বিচার দাবি জানাচ্ছি।
ড. ওবায়দুল ইসলাম বলেন, আমরা শহীদ আবরার হত্যার বিচার চাই। বুয়েটের প্রশাসনসহ এ ঘটনায় যারা জড়িত তাদের সবার শাস্তি দাবি করছি। ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে এসব ঘটনা অহরহ ঘটে। গেস্টরুম কালচার আছে। কিন্তু ভিন্ন মতের কারণে জীবন দেয়ার ঘটনা আবরারই প্রথম। আমরা দেখেছি বুয়েটের ভিসি ৩৬ ঘণ্টা পর বুয়েটে এসেছেন। তিনি ঘটনার সময় আসেননি, নামাজে জানাজায়ও আসেননি। তাকে ঘৃণা জানাই। আমরা তার অবিলম্বে পদত্যাগ এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না দিলে এ ধরনের কুলাঙ্গাররা, এ সমস্ত ছাত্রনেতারা রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ পদে তাদের মদদে রয়েই যাবে।
তিনি আরো বলেন, তাদেরকে যদি এখনই থামানো না যায় তাহলে এই দেশ হয়তো আমাদের থাকবে না। কারণ আবরার দেশ রক্ষার জন্যই স্ট্যাটাস দিয়েছিল। সে জন্যই তাকে জীবন দিতে হয়েছে। আমরা যদি এখনই রুখে না দাঁড়াই তাহলে এ ধরনের ঘটনা ঘটতেই থাকবে।


আরো সংবাদ

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জাতীয় পতাকা অবমাননা মামলার শুনানি ৪ নভেম্বর ডিএনসিসির জরিপ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার দায়ে আটক ১ শিবচরে গণ-উন্নয়ন সমিতির কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ জবি ছাত্র ইউনিয়নের নেতৃত্বে মুত্তাকী-জাহিন তোলারাম কলেজে কোথায় টর্চার সেল? ‘দ্বীনকে বিজয়ী করতে সর্বক্ষেত্রে যোগ্যতার স্বাক্ষর রাখতে হবে’ বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি মোজাফফরের জামিন বাতিল জয়নুল আবেদীন, মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ তিনজনের জামিন শেখ রাসেলের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ইউল্যাব স্কুলে আলোচনা জহুর-তনয় আশফাকের স্মরণসভাসিএনসির বিচারককে প্রত্যাহার দাবি আইনজীবী ফোরাম ও বার সম্পাদকের

সকল