১৬ ডিসেম্বর ২০১৯

নারী শ্রমিকদের বৈষম্যরোধে কাজ করছে শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন : অধ্যাপক পরওয়ার

-

বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের সভাপতি সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার বলেছেন, দেশের শ্রমবাজারের প্রায় অর্ধেকই নারী, শ্রমবাজারে তাদের অংশগ্রহণ গুরুত্বপূর্ণ হলেও অধিকারের বিষয়টি কখনোই সেভাবে গুরুত্ব পায়নি। একই ধরনের কাজে নারী শ্রমিক পুরুষ শ্রমিকের তুলনায় ৫৬ শতাংশ কম মজুরি পায়। কর্মক্ষেত্রের প্রায় সব স্তরেই নারীরা শিকার হচ্ছে তীব্র মজুরি বৈষম্যের। তাই নারী শ্রমিকদের বঞ্চনা-নিপীড়ন ও বৈষম্যের অবসানের লক্ষ্যে বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন অগ্রণী ভ‚মিকা পালন করবে।
গতকাল শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন ঘোষিত ১-১৫ ডিসেম্বর দেশব্যাপী শ্রমিক সেবাপক্ষ পালনের অংশ হিসেবে ফেডারেশনের মহিলা বিভাগের আয়োজনে দুস্থ মহিলাদের সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমানের পরিচালনায় এ সময় বিশেষ অতিথি ছিলেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি অধ্যাপক হারুনুর রশিদ খান। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদের সদস্য ও ঢাকা মহানগরীর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান, ফেডারেশনের ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের মুগদা থানা দক্ষিণের উপদেষ্টা বনি ইয়ামিন ও উত্তরের উপদেষ্টা মতিউর রহমান প্রমুখ।
মিয়া গোলাম পরওয়ার বলেন, কর্মক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ আগের তুলনায় অনেকগুণ বেড়েছে। গার্মেন্ট শিল্পে ৮০ শতাংশ, চিংড়ি শিল্পে ৮৫ শতাংশ থেকে ৯০ শতাংশ, চা শিল্পে ৭৫ শতাংশ, হস্তশিল্পে ৭০ শতাংশ, কৃষিতে ৩০ শতাংশ, গৃহশ্রমিক শিল্পে ৯৫ শতাংশ এবং অন্যান্য শিল্পে ২০ শতাংশ থেকে ৩০ শতাংশ নারী শ্রমিক কর্মরত রয়েছে। অথচ বিশাল এ কর্মজীবী নারী শ্রমিক শ্রম আইনের সুবিধা থেকে বঞ্চিত। এ ছাড়া মাতৃত্বকালীন ছুটি, নিরাপদ ও স্বাস্থ্যকর কর্মপরিবেশ, ইত্যাদি অধিকার ও সুযোগ-সুবিধা থেকে কর্মজীবী নারীরা আজো বঞ্চিত। তাই আগামী দিনে শ্রমজীবী-কর্মজীবী নারীদের সংগঠিত করে এবং তাদের ন্যূনতম সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ইনসাফ-ভিত্তিক শ্রমনীতির বাস্তবায়নে শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন অগ্রণী ভ‚মিকা পালন করবে। বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ