২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০
কমিশনের সাথে বৈঠক শেষে এইচ টি ইমাম

ভোট বানচালে বিএনপির পরিকল্পিত হামলা

-

নির্বাচন বানচালের জন্য ইশরাক হোসেনসহ বিএনপির ক্যাডাররা পরিকল্পিতভাবে আওয়ামী লীগ কর্মীদের ওপর হামলা করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচ টি ইমাম। তিনি বলেন, আমাদের কর্মীদের ওপর পরিকল্পিতভাবে হামলা করা হয়েছে। সে তথ্য-প্রমাণ নিয়ে আমরা আজ এসেছিলাম কমিশনে। এর আগে বিএনপির শক্তিশালী প্রতিনিধিদল এসেছিল, তাদের অনেক অভিযোগ ছিল। আসলে চোরের মায়ের বড় গলা। কারণ গতকালের হামলা সাজানো ও পরিকল্পিত। বিএনপির ক্যাডাররা এমনভাবে এটি করেছেন যে, তারা আগে থেকেই তৈরি হচ্ছিলেন।
রাজধানীর আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে গতকাল বিকেলে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কার্যালয়ে কমিশনের সাথে বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ করেন। এইচ টি ইমামের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ প্রতিনিধিদলে ছিলেনÑ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া।
এইচ টি ইমাম বলেন, ২০১৪-১৫ সালে অগ্নিসন্ত্রাসের সময় যারা জেলে ছিলেন, তাদের ঢাকায় নিয়ে আসা হয়েছে। বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র করে তারা ঢাকায় বিভিন্ন জায়গায় অবস্থান নিয়েছেন। বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসীরা এমন কিছু করতে পারেন, যাতে নির্বাচন বানচাল হয়ে যায়। কমিশনকে আমরা এসব তথ্য দিয়েছি। গতকাল আমাদের অনেকে আহত হয়েছেন, আমাদের কর্মীদের, যাদের গুলি লেগেছে, তারা হাসপাতালে আছেন, যোগ করেন এইচ টি ইমাম।
বিএনপির মেয়রপ্রার্থী ইশরাক হোসেনের বাবা মরহুম সাদেক হোসেন খোকার প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ইশরাক হোসেন তার বাবার মতো নাটক করে থাকতে পারেন। তার বাবা মরহুম সাদেক হোসেন খোকা নিজের মাথায় পট্টি বেঁধে ও গরুর রক্ত গায়ে মেখে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। এ ধরনের নাটক করার তাদের অভ্যাস রয়েছে। এ ধরনের নাটক আজকেও করে থাকতে পারে। তিনি বলেন, আমরা চাইব নির্বাচন সুষ্ঠু হোক। আমরা কি চাইব মারামারি করে নির্বাচন নষ্ট হোক? আমাদের প্রার্থীদের বিজয় সুনিশ্চিত। এ ধরনের কর্র্মকাণ্ড যেন না হয়, সেটাই দেখছি আমরা।
এইচ টি ইমাম বলেন, আমরাই আচরণবিধি মেনে চলছি। এমপি-মন্ত্রীরা প্রচারণায় যাচ্ছেন না। রিটার্নিং অফিসার দেখভাল করছেন। আগামীকাল থেকে নির্বাহী হাকিম বাড়বে। আচরণবিধি লঙ্ঘিত হলে তারা ব্যবস্থা নেবেন।


আরো সংবাদ