১৮ নভেম্বর ২০১৯

নিখোঁজের ৫ দিন পর বাড়ির কাছেই মিললো শিক্ষার্থী অমির লাশ

খেলার মাঠ থেকে নিখোঁজের পাঁচদিন পর পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী আকিব ইসলাম খান অমির (১২) বস্তাবন্দী লাশ মিললো বাড়ির কাছের এক ধানক্ষেতে। বুধবার দুপুরে নালিতাবাড়ী পৌর শহরের কালিনগর মহল্লার একটি ধানক্ষেত থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শেরপুর মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। এদিকে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ পাঁচজনকে আটক করেছে। নিহত অমি শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌরশহরের কালিনগর বাইপাস এলাকার আব্দুর রউফ খানের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শাহীন স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির মেধাবী ছাত্র আকিব ইসলাম খান অমি (১২) গত ২ নভেম্বর শনিবার বিকেলে বাড়ির পাশে খেলতে গিয়ে আর ফিরে আসেনি। শহরে মাইকিং করে ও স্বজনদের বাড়িতে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও অমির কোনো সন্ধান না পেয়ে নালিতাবাড়ী থানায় প্রথমে একটি সাধারণ ডায়েরী ও পরে একটি মামলা করে তার পরিবার। পরে মঙ্গলবার রাতে পুলিশ অভিযানে নেমে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করে। বুধবার সকালে পুলিশ আবার ওই এলাকায় চিরুণী অভিযান চালিয়ে বাড়ির অদূরেই একটি ধানক্ষেতে বস্তাবন্দী অবস্থায় অমির লাশ উদ্ধার করে।

পুলিশ জানায়, নিহত অমির লাশটি গলায় নাইলনের রশি দিয়ে পেচানো ও রশি দিয়ে পা বাঁধা অবস্থায় ছিল। ধারণা করা হচ্ছে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর বস্তাবন্দী করে লাশ ধানক্ষেতে ফেলা রাখা হয়। তবে কেন এ শিশুটিকে হত্যা করা হয়েছে তা উদঘাটনের জন্য পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম মাঠে কাজ করছে।

এদিকে প্রকৃত খুনীদের খুঁজে বের করতে পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীমের নেতৃত্বে পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম মাঠে কাজ করছে। ইতোমধ্যেই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচজনকে আটক করে থানায় নেয়া হয়েছে।

নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোকছেদুর রহমান লেবু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) লুবনা শারমীন, পৌরসভার মেয়র আবু বক্কর সিদ্দীক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন।


আরো সংবাদ