১৮ নভেম্বর ২০১৯

গফরগাঁওয়ে ভাইয়ের শ্বশুরের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা ছাত্রী, ধর্ষক আটক

-

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায় এক মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণ করে অস্তঃসত্ত্বার অভিযোগে আতাউর রহমান (৩৭) নামে এক লম্পটকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি সম্পর্কে ওই ছাত্রীর ভাইয়ের শ্বশুর।

এঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে বুধবার রাতে পাগলা থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

ধর্ষক আতাউর রহমানের বাড়ি লালমনিরহাট জেলার সদর থানায়। তিনি গফরগাঁও উপজেলার গোয়লবর গ্রামে একটি পোল্ট্রি খামারে কাজ করতেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পাইথল ইউনিয়নের গোয়ালবর গ্রামের জনৈক ব্যক্তির মেয়ে গয়েশপুর দাখিল মাদরাসায় নবম শ্রেণীতে লেখাপড়া করে। অভিযুক্ত আতাউর রহমানের মেয়েও মাদরাসায় একই শ্রেণীতে লেখাপড়ার করত। সে সুবাধে তাদের মধ্যে সখ্য গড়ে উঠে। ফলশ্রুতিতে পারিবারিকভাবে পছন্দ করে আতাউর রহমানের মেয়ের বিয়ে হয় ওই ছাত্রীর ভাইয়ের সাথে। এ বিয়ের পর লম্পট তাঐ আতাউর রহমানের লোলুপ দৃষ্টি পড়ে ওই মাদরাসাছাত্রীর উপর। মেয়েটি বেড়াতে গেলে গত ২৮ মে রাতে বাড়ির পাশে একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে লম্পট তাঐ তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এতে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

পাগলা থানার ওসি (তদন্ত) ফয়েজুর রহমান জানান, গ্রেফতাকৃত আসামি আতাউর রহমান দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দী দিয়েছেন।

অপরদিকে, উপজেলার দাইরগাঁও দাখিল মাদরাসার এক জেডিসি পরীক্ষার্থীকে বাড়ি থেকে অপহরণ করে নিয়ে ২৫ দিন আটকে রেখে গণধর্ষণের মূল হোতা বিপ্লবকে গ্রেফতার করেছে পাগলা থানা পুলিশ। আত্মগোপনে থাকা বিপ্লবকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার গুজিয়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করে পুলিশ।


আরো সংবাদ