Naya Diganta

রান্না-বান্না বিকেলের নাশতা

এই বৃষ্টিভেজা দিনে বিকেলের নাশতার প্রতি পরিবারের সব সদস্যেরই থাকে বাড়তি আকর্ষণ। এ ছাড়া বাসায় অতিথি এলে তো কথাই নেই। বিকেলের নাশতার ব্যতিক্রমী কিছু নাশতার রেসিপি থাকছে আজকের আয়োজনে। রেসিপি দিয়েছেন কাজী তানজিলা মেহনাজ

ব্রকোলি পাকোরা

উপকরণ : ২৫০ গ্রাম ব্রকোলি, কুচি করা ১টি পেঁয়াজ, কুচি করা ২টি কাঁচামরিচ (বীজ ফেলে মিহি কুচি করা), ৫০ গ্রাম বেসন, ১ চা চামচ মৌরি, লবণ (স্বাদ অনুযায়ী), তেল।
প্রণালী : একটি বড় বাটিতে ব্রকোলি, পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ, বেসন, চাট মসলা ও লবণ নিয়ে ভালোভাবে মেখে নিতে হবে। অল্প পানি মেশাতে হবে যাতে ঘন তরল একটি খামির তৈরি হয়। তারপর ফ্রাইপ্যানে অল্প তেল গরম করতে হবে। এবার টেবিল চামচ দিয়ে এক চামচ করে খামির নিয়ে প্যানের তেলে দিতে হবে। একপাশ সোনালি হয়ে এলে উল্টে দিতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে টিস্যু পেপারে চেপে তেল শুষে নিয়ে তারপর পরিবেশন করতে হবে টমেটো সস অথবা পুদিনার চাটনির সাথে।

মুচমুচে পটেটো ফিঙ্গার্স

উপকরণ : ২টি বড় সাইজের আলু, ১ থেকে ৩ কাপ সুজি, ১ চা চামচ চালের গুঁড়ো, ২ টেবিল চামচ ধনেপাতা কুচি, ২টি কাঁচামরিচ (বীজ ফেলে কুচি করে নেয়া), ১ চা চামচ তেল (সুজির খামিরের জন্য), আধা চা চামচ লবণ অথবা স্বাদ অনুসারে, ২ কাপ তেল (ভাজার জন্য)।
প্রণালী : ১ থেকে ৩ কাপ পানি ফুটিয়ে নিতে হবে। ফুটে উঠলে চুলা বন্ধ করে তাতে এক চা চামচ তেল দিতে হবে। তার পর ১ থেকে ৩ কাপ সুজি দিয়ে ভালোভাবে নেড়ে তিন মিনিটের জন্য ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে। তিন মিনিট পর সুজিটা ভালোভাবে চটকাতে হবে যেন কোনো সুজি দলা হয়ে না থাকে। আলু সেদ্ধ করে খোসা ছাড়িয়ে ভালোভাবে চটকে নিতে হবে। এখন একটি বোলে চটকানো আলু ও সুজি, চালের গুঁড়ো, লবণ, ধনেপাতা কুচি ও কাঁচামরিচ কুচি নিয়ে ভালোভাবে মিক্স করতে হবে। যদি বেশি পাতলা মনে হয় তাহলে আরো কিছু চালের গুঁড়ো ও সুজি যোগ করে আবারও মাখিয়ে নিতে হবে। তারপর এই খামিরটা থেকে অল্প করে নিয়ে নিয়ে আঙুলের আকার করে নিন। চুলায় তেল গরম করুন। তেল মিডিয়াম হিট হলে তাতে পটেটো ফিঙ্গারগুলো ছেড়ে দিন। মাঝে মধ্যে সাবধানে উল্টে দিন। সোনালি রঙ হয়ে গেলে তুলে পরিবেশন করুন টমেটো অথবা চিলি সসের সাথে।

চিকেন পিনহুইলস

উপকরণ : ১ কাপ ময়দা, ২ টেবিল চামচ সুজি, লবণ স্বাদমতো, তেল, কালোজিরা আধা চা চামচ, আলু ২টি, মুরগির বুকের গোশত ১ কাপ, আদা রসুন বাটা আধা চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়ো আধা চা চামচ, লালমরিচ গুঁড়ো আধা চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়ো আধা চা চামচ, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল চামচ, ধনে গুঁড়ো আধা চা চামচ, ২টি কাঁচামরিচ (বীজ ফেলে চিকন করে কাটা), লেবুর রস এক টেবিল চামচ।
প্রণালী : একটি পাত্রে ময়দা, লবণ, সুজি ও দুই টেবিল চামচ তেল নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিয়ে অল্প অল্প করে পানি মিশিয়ে একটি খামির বানিয়ে নিতে হবে। তার পর খামিরের ওপর তেল মাখিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে আধা ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। মুরগির বুকের গোশত আদা রসুন বাটা, লবণ ও গোলমরিচ গুঁড়ো দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে। তার পর ঠাণ্ডা করে হাত দিয়ে গোশতটি ছিঁড়ে ছোট ছোট চিকন পিস করতে হবে। আলু সেদ্ধ করে ভালোভাবে চটকে নিতে হবে যেন কোনো দলা না থাকে। তারপর আলুর সাথে চিকেন, ধনেপাতা কুচি, কাঁচামরিচ কুচি, ধনে গুঁড়ো, লবণ, লেবুর রস, লালমরিচ গুঁড়ো ও গরম মসলা গুঁড়ো দিয়ে ভালোভাবে মাখিয়ে নিতে হবে। তার পর খামিরটি বেলে একটি বড় রুটির আকার দিতে হবে। রুটির ওপর আলু ও চিকেনের পুরটি বিছিয়ে দিতে হবে। তার পর রুটিটাকে পুরসহ পেঁচিয়ে রোলের মতো বানিয়ে নিতে হবে। তার পর একটি ছুরি দিয়ে রোলটিকে হালকাভাবে চিকন করে পিস করে কেটে নিতে হবে। পিসগুলো গোল গোল হবে। এক টেবিল চামচ পরিমাণ ময়দা ও আধা কাপ পানি মিশিয়ে খুবই পাতলা একটি ব্যাটার বানিয়ে নিতে হবে। এই ব্যাটারে একটি একটি করে পিনহুইল ডুবিয়ে তুলে নিয়ে ডুবো তেলে ভাজতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে সস দিয়ে পরিবেশন করুন।