Naya Diganta

বাথরুমে নিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করলো ৬৪ বছরের বৃদ্ধ

আশুলিয়ায় ৭ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে নির্যাতিতার মা বাদি হয়ে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা করেছে।

২০ জুলাই, শনিবার বেলা ১২টায় গুমাইল উত্তরপাড়ার এক ভাড়া বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনায় ২১ জুলাই রোববার আশুলিয়া থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়। তবে এ ঘটনায় পুলিশ ধর্ষককে আটক করতে পারেনি।

ধর্ষক আজগর আলী(৬৪) গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ থানাধীন শান্তিরাম এলাকার মৃত দারাজ উদ্দিন এর ছেলে। তিনি আশুলিয়ার গুমাইল উত্তরপাড়া এলাকার একই বাড়িতে পার্শ্ববর্তী কক্ষে ভাড়া একটি কারখানায় সিকিউরিটি গার্ডে চাকুরি করে।

এ ব্যাপারে নির্যাতিতা শিশুর মা এজাহারে উল্লেখ করেন, তিনি ও তার স্বামী মিজানুর রহমান পোশাক কারখানায় চাকুরি করেন। পার্শ্ববর্তী কক্ষে আমার পিতা-মাতা ও ভাই ভাড়া থাকেন। ঘটনার দিন আমরা কারখানার কাজে সকাল ৮টায় যোগদান করি। ওইদিন দুপুরে পার্শ্ববর্তী ভাড়াটিয়া আজগর আলী আমার ৭ বছরের শিশু কন্যাকে ডেকে নিয়ে বাথরুমে গিয়ে ধর্ষণ করে।

একইভাবে ১৬ জুলাই সকাল ১০টায় আজগর আলী তার রুমে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। সর্বশেষ ঘটনার দিন বাথরুমে ডেকে নিয়ে ধর্ষণকালে আমার ভাই জব্বার দেখে ফেলে এবং শিশুটিকে উদ্ধার করে। বিষয়টি বাড়ির মালিক ও প্রতিবেশিদের জানিয়ে কোন প্রতিকার না পেয়ে থানায় মামলা রুজু করি।

জানতে চাইলে আশুলিয়া থানার সাব ইন্সপেক্টর রাকিবুল জানান, মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা তিনি। অভিযোগ পেয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিসে পাঠানো হয়েছে। তবে ধর্ষক আজগর আলী পলাতক রয়েছে। তাকে ধরতে অভিযান চলছে।