Naya Diganta

দৃষ্টিপাত : শোকগাথা এবং কিছু দাবি

নিরীহ, নির্দোষ, হতভম্ব, কিছুটা চাপা স্বভাবের, অল্পতেই ঘাবড়ে যাওয়া হতভাগ্য মৃত্যুর পর দেশবাসীর আলোচিত রেনু এবং অন্যরা সম্পূর্ণ মিথ্যা গুজব ও সন্দেহে গণপিটুনিতে নৃশংসভাবে খুন হলো। এ জন্য শোক প্রকাশ করার ভাষা নেই। তাদের রূহের মাগফিরাত কামনা করছি। রেনুর অবুঝ দু’টি সন্তানসহ সবার পরিবার-পরিজনের প্রতি গভীর শোক ও সমবেদনা জানাই। রেনু মারা গিয়ে নিষ্কলঙ্ক এবং নির্দোষ প্রমাণ হয়েছে। রেনুরা শুধু ছেলেধরা গুজবেই শহীদ হয়নি, বরং দেশের ও সমাজের মিথ্যাচারের বলি হয়েছে। মাদক গ্যাংকে প্রশ্রয়দানকারী নেতারাও নিজে ভালো, বাকি সবাই খারাপ; পুলিশের ভাষ্য আদালতে গৃহীত না হলে, রাজনৈতিকভাবে প্রভাবিত হয়ে অনেক আসামি নিয়ে অসত্য ভাষ্য মিডিয়ার মাধ্যমে দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে। মিথ্যা শুনতে শুনতে মানুষ যখন অতিষ্ঠ ও বিরক্ত, তখনই আতঙ্কজনক ভিত্তিহীন আরেক মিথ্যা খবর ছড়িয়ে পড়ল, ‘পদ্মা সেতুতে নরমস্তক লাগবে।’ ইসলাম ও বিজ্ঞানে যা কখনই সত্য নয়। নেত্রকোনায় ছিন্ন মস্তকসহ একজন গণপিটুনিতে নিহত হওয়ায় দেশব্যাপী দাবানলের মতো ছেলেধরাদের প্রতি ঘৃণা ও ক্ষোভ উপচে পড়তে থাকে। অভিভাবকেরা সন্তানদের নিয়ে মারাত্মক আতঙ্কে। ক্ষোভের বলি হলেন রেনুরা। এরপর সন্তানের জীবন এবং নিজের জীবন নিয়েও অভিভাবকেরা দিশাহারা হয়ে পড়লেন। সত্য যখন হারিয়ে যায়, মিথ্যা তখন মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। রেনুদের জন্য কিছু দাবি জানাচ্ছিÑ ১. রেনুদের হত্যা/শহীদ দিবসকে গুজব প্রতিরোধ দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হোক। ২. রেনুরা পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে চলে গেলে,পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ দিয়ে সরকার তাদের সব দায়িত্ব নিতে হবে। ৩. গুজব প্রতিরোধে সব ব্যবস্থা নিতে হবে। ৪. সবাইকে মিথ্যাচার ছেড়ে ভালো হয়ে যেতে হবে।
সিদ্দিক উল্লাহ, চরপাতা, রামপুর, লক্ষ্মীপুর