Naya Diganta

৩ মাসেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ হাসানুলের

নিখোঁজ হাসানুল আলম নয়ন

নিখোঁজের পর ৩মাস পেরিয়ে গেলেও এখনো সন্ধান মেলিনে হাসানুল আলম নয়ন (২৯) নামে এক যুবকের। এ ঘটনায় উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন নিখোঁজ হাসানুলের মা হাসিনা বেগম।

জানা যায়, বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নয়ন গত ২৪ মে রাজধানীর আগারগাঁও থেকে ঈদ করতে ঢাকার দোহার উপজেলার লক্ষ্মীপ্রসাদ এলাকায় মামা মোতালেব মুন্সীর বাড়িতে বেড়াতে যান। এরপর ২৯ মে এশার নামাজ পড়ার জন্য নয়নের মামাতো ভাই সাব্বিরকে সাথে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়। নামাজ শেষে সাব্বির বাড়িতে আসলেও ফিরে আসেনি নয়ন। ঘটনার পর থেকে নয়নের মা হাসিনা বেগম সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজাখুজি করেও ছেলের সন্ধান না পেয়ে দোহার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এ ঘটনায় দোহার থানা পুলিশ মোতালেব মুন্সীর ছেলে সাব্বিরকে (২৮) ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের পর ছেড়ে দেয়।

এদিকে নিখোঁজের তিন মাস হওয়ার পরও ছেলের সন্ধান না পেয়ে উৎকণ্ঠার মধ্যে সময় পার করছেন নয়নের মা। বাংলাদেশ বেতারের কর্মকর্তা হাসিনা বেগম জানান, ওইদিন আমার ছেলে ঘরে শোয়া ছিল। নামাজের কথা বলে আমার ভাজিজা জোর করে নয়নকে নিয়ে যায়। নামাজ শেষে সাব্বির বাসায় ফিরে আসলেও আমার ছেলে নয়ন আসেনি। আমি সাব্বিরকে জিজ্ঞেস করলাম তুই আসলি নয়ন কোথায়? এখন আমি আমার ছেলের ব্যাপারে কী বুঝব। যদি উদ্দেশ্যে প্রণোদিতভাবে আমার ছেলেকে কেউ গোপন করে থাকে তাহলে তাদের যদি কোন চাওয়া পাওয়া থাকে তবুও আমার ছেলেকে ফেরত চাই।

এ ব্যাপারে দোহার থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন জানান, নয়নের ব্যাপারে আমাদের তদন্ত অব্যাহত রয়েছে। এর আগে আমরা সন্দেহজনকভাবে নয়নের মামাতো ভাই সাব্বিরকে আটক করা হয়েছিলাম। প্রয়োজনে হলে তাকে আবারও আটক করে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।