Naya Diganta

মডেল টেস্ট পরীক্ষার এক প্রশ্নেই অর্ধশতাধিক ভুল!

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বালিয়াকান্দি সরকারি পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর কারিগরি পরীক্ষার সাধারণ গণিত বিষয়ক মডেল টেস্টে পরীক্ষার ভুল বানানে ভর্তি প্রশ্নপত্র দিয়েই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার দুপুর ২টা থেকে শুরু হওয়া আড়াই ঘন্টা ব্যাপী ৭০ নম্বরের মধ্যে কারিগরি বিভাগের সাধারণ গণিত বিষয়ে মডেল টেস্ট অনুষ্ঠিত হয়।

প্রশ্নপত্রে দেখা যায়, বালিয়াকান্দি সরকারী পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ‘বিদ্যালয়’ বানানটি ভুল। ‘বিদ্যালয়’ বানানের স্থানে ‘বিদ্যায়ল’ লেখা হয়েছে। সময় : ২.৩০ মিনিট লেখা যা, মূলত হবে ২.৩০ ঘন্টা।

এছাড়া প্রমাণ, বর্গক্ষেত্র, দৈর্ঘ্য, আয়তন, ত্রিভুজের মতো বানান ভুল করেছে কর্তৃপক্ষ। এসব ভুল বানানসহ ১ থেকে ১২টি প্রশ্নের মধ্যে অর্ধশতাধিক বানান ভুল রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পরীক্ষার্থী বলেন, এত ভুলের ব্যাপারে স্যারদের কাছে বললে গিয়াস স্যার মুখে ঠিক করে দেয় এবং আমরা প্রশ্নে সেগুলো হাতে লিখে ঠিক করে পরীক্ষা দেই।

এ ব্যাপারে বালিয়াকান্দি সরকারী পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের গণিতের শিক্ষক মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, এমন ঘটনা ঘটলে সেটা তো অদ্ভুত ব্যাপার। আমরা কয়েকজন মিলে প্রশ্ন করে আহবায়ক কমিটির কাছে দিয়েছিলাম। প্রশ্ন করার পর যাই হোক সেটা আহবায়ক কমিটির উপর বর্তায়।

ভুল প্রশ্নের ব্যাপারে পরীক্ষা পরিচালনা কমিটির আহবায়ক শেখ মোঃ আব্দুল মাজেদ ভুলের বিষয়টি স্বীকার করে তিনি বলেন, প্রশ্নটিতে প্রায় ১৫ শতাংশ বানান ভুল ছিল। যেগুলো প্রিন্ট হয়ে আসার পরে আমাদের দেখে পরীক্ষা গ্রহণ করা উচিত ছিল কিন্তু সেটা করা হয়নি। এটা বড় ধরনের ভুল।

এই ভুলের দায় নেওয়া প্রসঙ্গে তিনি জানান, আসলে এ দায় আমার একার না। এই কমিটিতে চারজন সদস্য রয়েছে দায় তাদের উপরও পরে।

সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালাম বলেন, বিষয়টি অনাকাঙ্খিত, প্রতিষ্ঠান প্রধান হিসেবে এ ঘটনায় আমি দুঃখ প্রকাশ করছি। সংশ্লিষ্ট বিষয়ের শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হচ্ছে। ভবিষ্যতে যাতে এমন ঘটনা না ঘটে সে কারণে সর্বোচ্চ সর্তকতা অবলম্বন করা হবে।