Naya Diganta

আলোচনা শুরুর ঘোষণা দিয়েই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া

আবারো ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। বুধবার সকালে দেশটির পূর্ব উপকূলে এই ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হয়েছে । আমেরিকার সাথে পরমাণু অস্ত্র নিয়ে আলোচনা আবার শুরু করতে সম্মত হওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর এ পরীক্ষা চালাল পিয়ংইয়ং।

দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক সূত্রের বরাত দিয়ে আল জাজিরা জানিয়েছে, পূর্ব উপকূলে সম্ভবত কোন সাবমেরিন থেকে ক্ষেপণাস্ত্রটি ছোড়া হয়েছে। এই ধারণা সত্যি হলে এই হবে তিন বছর পর উত্তর কোরিয়ার সমুদ্রের তলদেশ থেকে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ।

পার্স  টুডের খবরে বলা হয়েছে,  ধারণা করা হচ্ছে উত্তর কোরিয়া নিজের সামরিক শক্তির জানান দিতে এই ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে, যা আমেরিকার সঙ্গে আসন্ন আলোচনায় কঠিন দর কষাকষিতে ভুমিকা রাখবে। সেইসঙ্গে পিয়ংইয়ং একথাও জানিয়ে রাখতে চায়, সংলাপে তার দাবি পূরণ করা না হলে উত্তেজনার মাত্রা তুঙ্গে নিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা তার রয়েছে।

উত্তর কোরিয়া সরকার মঙ্গলবার ঘোষণা করে, দেশটি আগামী শনিবার থেকে আমেরিকার সঙ্গে পরমাণু আলোচনা আবার শুরু করবে। গত জুনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সাক্ষাতের পর এই প্রথম দু’দেশের মধ্যে আলোচনা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

কিন্তু বুধবার সকালে দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ বলেছেন, উত্তর কোরিয়া একটি ‘অজ্ঞাত ক্ষেপণাস্ত্র’ নিক্ষেপ করেছে। আর জাপান বলেছে, উত্তর কোরিয়া সম্ভববত একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে তা জাপানের বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চলে পড়েছে।

গত জুনে দুই কোরিয়ার সীমান্তবর্তী বহুল আলোচিত পানমুনজাম গ্রামে পরস্পরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন কিম জং-উন ও ডোনাল্ড ট্রাম্প। এটি ছিল এক বছরের মধ্যে দুই নেতার তৃতীয় সাক্ষাৎ।