Naya Diganta

জানলে ধর্মঘটে যোগ দিতেন মাশরাফিও!

বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা ১১ দফা দাবিতে যে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে, তাতে ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা কেন ছিলেন না, নানা তরফ থেকে এই প্রশ্ন ওঠার পর তিনি নিজেই বলছেন, ক্রিকেটারদের এই উদ্যোগ সম্পর্কে অবগত ছিলেন না তিনি, থাকলে অবশ্যই যোগ দিতেন।

নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পাতায় একটি স্ট্যাটাস দিয়ে এই বক্তব্য দিয়েছেন তিনি।

মাশরাফি, যিনি জাতীয় দলের অধিনায়কের পাশাপাশি সরকার-দলীয় একজন সংসদ সদস্যও, তিনি সোমবার সন্ধেবেলায় টেলিফোনে বিবিসিকে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে বলেছিলেন, তিনি ক্রিকেটারদের ধর্মঘট নিয়ে কথা বলতে চান না।

"যখন ক্রিকেট নিয়ে কথা বলবো তখন ক্রিকেটের কথা, এখন নয়। এখন এই বিষয়ে কোনো কথা বলবো না।"

বিবিসির ক্রীড়া সংবাদদাতা রায়হান মাসুদকে তিনি আরো বলেছিলেন, "বিশ্বকাপের পরে আর ক্রিকেট নিয়ে কথা বলছিনা আমি, আবার যখন ফিরবো তখন কথা হবে।"

কিন্তু ফেসবুকে দেয়া পোস্টে তিনি স্পষ্টতই অনুযোগ করছেন, আন্দোলনকারী সতীর্থরা তাকে অন্ধকারে রেখেছিলেন।

মাশরাফি লিখছেন, "অনেকেই প্রশ্ন করছেন যে, দেশের ক্রিকেটের এমন একটি দিনে আমি কেন উপস্থিত ছিলাম না। আমার মনে হয়, প্রশ্নটি আমাকে না করে, ওদেরকে করাই শ্রেয়। এই উদ্যোগ সম্পর্কে আমি একদমই অবগত ছিলাম না"।

"নিশ্চয়ই বেশ কিছু দিন ধরেই এটি নিয়ে ওদের আলোচনা ছিল, প্রক্রিয়া চলছিল। কিন্তু এ সম্পর্কে আমার কোনো ধারণাই ছিল না। সংবাদ সম্মেলন দেখে আমি ওদের পদক্ষেপ সম্পর্কে জানতে পেরেছি"।

স্ট্যাটাসে মাশরাফি আরো লেখেন, "ক্রিকেটারদের নানা দাবির সঙ্গে আমি আগেও একাত্ম ছিলাম, এখনও আছি। আজকের পদক্ষেপ সম্পর্কে আগে থেকে জানতে পারলে অবশ্যই আমি থাকতাম"।

"আমার ঊপস্থিত থাকা কিংবা না থাকার চেয়ে, ১১ দফা দাবি বাস্তবায়িত হওয়াই বড় কথা। সবকটি দাবিই ন্যায্য, ক্রিকেট ও ক্রিকেটারদের মঙ্গলের জন্য জরুরী। আমি মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা, ১১ দফা দাবি শান্তিপুর্ন ভাবে বাস্তবায়িত হওয়ার পক্ষে আছি, থাকব"।
সূত্র : বিবিসি