Naya Diganta

২৯ রোহিঙ্গার স্বেচ্ছায় ফিরে যাওয়ার দাবি মিয়ানমারের

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ২৯ জন রোহিঙ্গা স্বেচ্ছায় রাখাইনে ফিওে গেছে বলে দাবি করেছে মিয়ানমার। গতকাল মিয়ানমার দূতাবাসের ফেসবুক পেজে এসব রোহিঙ্গার ছবিসহ এ তথ্য জানানো হয়েছে। তবে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেনি।
মিয়ানমার দূতাবাস থেকে জানানো হয়েছে, বাস্তুচ্যুত আরো ২৯ ব্যক্তি টাংপিয় লিটউই অভ্যর্থনা কেন্দ্রের মাধ্যমে রাখাইনে ফিরে এসেছে। মিয়ানমারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, সমাজ কল্যাণ, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রণালয় এবং শ্রম, জনসংখ্যা ও অভিবাসন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা তাদের স্বাগত জানিয়েছেন।
এতে বলা হয়, এ পর্যন্ত মোট ৩৫১ জন বাস্তুচ্যুত ব্যক্তি বাংলাদেশ থেকে স্বেচ্ছায় মিয়ানামার ফিরে এসেছে। মিয়ানমারের সমাজ কল্যাণ, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রণালয় তাদের প্রতি মাসে চাল, ভোজ্য তেলসহ খাদ্যসামগ্রী সরবরাহ করছে। বাংলাদেশে শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নেয়া আরো বেশ কিছু ব্যক্তি মিয়ানমার ফিরতে চায়।
প্রত্যাবাসন চুক্তির আওতায় বাস্তুচ্যুত ব্যক্তিদের ফিরিয়ে আনতে বাংলাদেশ সরকার ও জাতিসঙ্ঘের সাথে মিয়ানমার ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছে বলে জানিয়েছে দূতাবাস।
এ ব্যাপারে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, আমরা এ ব্যাপারে কিছুই জানি না। দ্বিপক্ষীয় ভিত্তিতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন হলে দুই দেশের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতেই তা হবে। এ পর্যন্ত একজন রোহিঙ্গাও প্রত্যাবাসন চুক্তির আওতায় মিয়ানমার ফেরত যায়নি।