২৩ আগস্ট ২০১৯

মধ্যপ্রাচ্য ‘সঙ্কটে’ আরবদের ঐক্যের ডাক আমিরাতের

-

মধ্যপ্রাচ্যে সঙ্কটপূর্ণ সময়ে পারস্য উপসাগরীয় এলাকায় আরবদের মধ্যে ঐক্যের ডাক দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। গত সপ্তাহে দেশটির উপকূলীয় এলাকায় তেলের ট্যাংকারে হামলার ঘটনায় গতকাল রোববার এ ঐক্যের আহ্বান জানান।
সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতি প্রকাশ করে। দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা তেলের ট্যাংকার হামলার ঘটনায় সৌদি আরবের বাদশা সালমানের জরুরি বৈঠকের আহ্বানকে স্বাগত জানিয়েছে।
আরব আমিরাতের উপকূলে গত শনিবার চারটি বাণিজ্যিক জাহাজে হামলা এবং এর দুই দিন পরই সৌদির রাজধানীর রিয়াদের কাছে একটি তেল শোধনাগারে ড্রোন হামলা চালানো হয়। সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজায়রা বন্দরের কাছে তেলবাহী জাহাজ ‘নাশকতামূলক’ হামলার শিকার হওয়ার পর ইরানের বিরুদ্ধে আরো আগ্রাসী অবস্থান নিতে রিয়াদ ও আবুধাবি সরকার যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও মিসরের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে।
তবে কায়রো সেই পথে যেতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। একটি কূটনীতিক সূত্র জানিয়েছে, নূূন্যতম পর্যায়ে হলেও ইরানের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক বজায় রাখাকে কায়রো গুরুত্ব দেয়। কিন্তু পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলো তেহরানের সাথে সরাসরি সংঘাতে যেতে কায়রোকে নানাভাবে প্রলুব্ধ করার চেষ্টা করছে। মিসরের একটি কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে, মধ্যপ্রাচ্যে সেনা পাঠানোর বিষয়ে মিসরকে রাজি করতে দেশটিকে আর্থিক এবং তেল সুবিধা দেয়ার পাশাপাশি সেখানে সরাসরি বিনিয়োগের প্রস্তাব দিয়েছে সৌদি আরব এবং আরব আমিরাত।
সংবাদমাধ্যমটি আরো জানিয়েছে, সৌদি আরবের তেল কোম্পানি ‘আরামকো’ মিসরকে প্রতি মাসে সাত হাজার ৫০০ কোটি ডলার মূল্যের তেল ফ্রি দেয়ার সময়সীমা বাড়ানোর পাশাপাশি মিসরের কেন্দ্রীয় ব্যাংকে বিপুল পরিমাণ ডলার জমা রাখার প্রস্তাব দিয়েছে রিয়াদ। এ ছাড়া আরব আমিরাতও মিসরের মোট রিজার্ভ বাড়াতে ১৫ বিলিয়ন ডলার জমা রাখার প্রস্তাব দিয়েছে।


আরো সংবাদ