১৯ অক্টোবর ২০১৯

ছুরিকাঘাতে আহত ইন্দোনেশিয়ার নিরাপত্তামন্ত্রী

-

ইন্দোনেশিয়ার নিরাপত্তাবিষয়ক মন্ত্রী উইরান্তো দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এতে তার শরীরে দু’টি গভীর ক্ষত হয়েছে তবে তিনি সজ্ঞান এবং স্থিতিশীল অবস্থায় আছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার জাভা দ্বীপের বান্টেন প্রদেশের পান্ডেগ্লাং শহরে এই ঘটনা ঘটে।
মন্ত্রী উইরান্তো জাভা দ্বীপের ব্যান্টেনের টাউন স্কয়ারে নিজের গাড়ি থেকে বেরিয়ে আসার সময় আক্রান্ত হন। দেশটির সাবেক সেনাপ্রধান ও সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রার্থী উইরান্তোর পেটে দু’টি গুরুতর জখম হয়েছে। তবে তার অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
হামলায় মন্ত্রীর নিরাপত্তা দায়িত্বে থাকা দুই পুলিশ সদস্য ও তার এক সফরসঙ্গী আহত হয়েছেন। পরে হেলিকপ্টারে করে দেশটির এই মন্ত্রীকে রাজধানী জাকার্তার একটি হাসপাতালে নেয়া হয়। হামলায় জড়িত সন্দেহে ঘটনাস্থল থেকে এক দম্পতিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
দেশটির পুলিশ মুখপাত্র দেদি প্রাসিতো ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন নারী। বেরকাহ হাসপাতালের মুখপাত্র ফিরমানশ বলেন, মন্ত্রীর দু’টি বড় ক্ষত হয়েছে। তবে তিনি আশঙ্কামুক্ত। তাকে দ্রুত রাজধানী জাকার্তা নিয়ে অস্ত্রোপচার করা হবে। সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও ক্লিপে দেখা যায়, মন্ত্রী গাড়ি থেকে নামার সময় কালো শার্ট পরা এক ব্যক্তি তাকে ছুরিকাঘাত করে। আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, হামলার পর মাটিতে লুটিয়ে পড়েন মন্ত্রী। সাথে সাথে কয়েকজন আহত মন্ত্রীকে তুলে গাড়িতে বসায়। হামলাকারীদের সাথে উপস্থিত জনতা মারামারি করতে থাকে।
বিগত মাসগুলোতে দেশটির অস্থিরতা নিরসনে উইরান্তোকে দায়িত্ব দেন জোকো উইডোডো। সাবেক এই সেনাপ্রধান ২০১৬ সাল থেকে নিরাপত্তামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। নিরাপত্তা মন্ত্রী হিসেবে পররাষ্ট্র, স্বরাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষাসহ পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধান করেন।
পুলিশের দাবি হামলাকারী আইএস আদর্শে উদ্বুদ্ধ। আইএস যদি ইন্দোনেশীয় এই মন্ত্রীকে ছুরিকাঘাতের ঘটনার দায় স্বীকার করে, তাহলে দেশটিতে এটিই হবে কোনো রাজনীতিকের ওপর আইএসের প্রথম হামলা।

 


আরো সংবাদ