২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

নতুন বছরে তারিখ লিখতে সতর্ক হোন

-

ব্যাংক, বীমা, ব্যবসা, বাণিজ্য কিংবা চাকরিসহ প্রায় অনেক কাজেই তারিখ উল্লেখ করার প্রয়োজন হয়। নতুন বছরে এই তারিখ লেখা নিয়ে সতর্ক থাকার কথা বলছেন অনেকে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই প্রচার করছেন যে, ২০২০ সালে তারিখ লেখা নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

তারা বলছেন, এই বছরটিতে কোনো ধরণের নথিপত্র বা গুরুত্বপূর্ণ প্রয়োজনীয় কাগজপত্রে পূর্ণাঙ্গ ফরমেটে তারিখ লেখাই ভালো হবে।

উদাহরণস্বরূপ বলা যায় : ০১-০১-২০২০ বা ৩১-১২-২০২০ বা এ ধরণের অর্থাৎ বছরকে পূর্ণাঙ্গভাবে লেখা।

যারা এর পক্ষে ক্যাম্পেইন করছেন তাদের যুক্তি হলো কেউ যদি ০১-০১-২০ লিখেন তাহলে কোনো অসাধু ব্যক্তি সেটি সহজেই সামনে দুটো শূন্য দিয়ে ০১-০১-২০০০ বানিয়ে দিতে পারবে বা ২০ এরপর যে কোনো দুটি সংখ্যা বসিয়ে দিতে পারবে। ফলে ব্যাংকের চেক বা ব্যবসা বাণিজ্যের কাগজপত্রের ক্ষেত্রে বড় ধরনের জালিয়াতি বা ক্ষতি করার সুযোগ তৈরি হতে পারে।

এসব কারণে নতুন বছরে তারিখ লেখার ক্ষেত্রে সচেতন হওয়ার পরামর্শ অনেকেই শেয়ার করছেন ফেসবুক সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

তাদের দাবি, তারিখ নিয়ে এ সমস্যাটি শুধু ২০২০ সালেই দেখা দিবে।

কিন্তু তারিখ লেখা আসলেই কতটা চিন্তার কারণ হতে পারে?

ইসলামি ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু রেজা মো: ইয়াহিয়া বিবিসি বাংলাকে বলছেন নানা প্রয়োজনে তারিখ বিভিন্নভাবে লেখা হয়।

"২০২০ সংখ্যাটা সাল হিসেবে একটু ভিন্নতর। তাই একটু সতর্ক থাকাই ভালো হবে। পহেলা জানুয়ারিকে ১-১-২০ লেখা ২০ এর সামনে অন্য ডিজিট বসানোর সুযোগ থাকে। চেকের ক্ষেত্রে হয়তো সমস্যা হবে না কারণ চেকের পাতায় ঠিকমতো তারিখ না লেখা হলে কর্মকর্তারা সেটি গ্রহণ করেন না।"

তিনি বলেন, তারপরেও ২০২০ নিয়ে তারা তাদের ম্যানেজারদের আরও সতর্ক থাকতে ও নিজেদের যে কোনো ডকুমেন্টে পূর্ণাঙ্গ তারিখ লেখার চর্চা বাড়াতে বলবেন।

তবে এনআরবি ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: খোরশেদ আলম বিবিসি বাংলাকে বলছেন বিষয়টি নিয়ে খুব একটা সমস্যার সুযোগ আছে তিনি মনে করেন না।

"ব্যাংকিং খাতে ফুল ডিজিটই লিখতে হয়। কেউ যদি কাউকে বিপদেও ফেলতে চায় সেটি করাও কঠিন হবে। লিগ্যাল কনটেন্ট, কোনো চুক্তি বা এগ্রিমেন্টে পূর্ণাঙ্গ বাংলা ও ইংরেজিতে তারিখ লেখা হয়। তাই তারিখ নিয়ে সমস্যা হবে বলে মনে হয় না।"

আলম বলেন, চেকের মাধ্যমে টাকা উত্তোলনের ক্ষেত্রে ভুল বা অসম্পূর্ণ তারিখ লেখা থাকলে সেটি এমনিতেই গ্রহণ করা হয় না।

আবার কারো লেখা তারিখ বিকৃত করা হলে সেটি ধরা পড়বে বা তিনি নিজেও জানাতে পারবেন এবং এসব কারণে ২০২০ সালে তারিখ লেখা নিয়ে উদ্বেগের কিছু নেই বলেই মনে করেন আলম।

- বিবিসি


আরো সংবাদ