১৩ নভেম্বর ২০১৯
সংসদীয় দলের সভা ডেকেছেন রওশন

বিধি অনুযায়ী বিরোধীদলীয় নেতা নির্বাচিত হবেন : স্পিকার

বিধি অনুযায়ী বিরোধীদলীয় নেতা নির্বাচিত হবেন : স্পিকার - ছবি : সংগৃহীত

বিরোধীদলীয় নেতা নির্বাচনের ক্ষেত্রে সৃষ্ট জটিলতা জাতীয় পার্টির নেতারাই সমাধান করবেন বলে মন্তব্য করেছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। তিনি বলেন, বিরোধী দলীয় নেতার নির্বাচনে সংসদের কার্যপ্রণালী বিধির আলোকেই সমাধান হবে। বিরোধী দলীয় নেতা নির্বাচন ইস্যুতে স্পিকারকে জাতীয় পার্টির দুই নেতার পাল্টাপাল্টি চিঠি দেয়ার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এ মন্তব্য করেছেন।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, চিঠি নিয়ে আইন-কানুন খতিয়ে দেখা হবে। আর বিরোধীদলীয় নেতা কে হবেন, তা কার্যপ্রণালী বিধিতে বলা আছে। সেই অনুযায়ীই ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন, বিরোধী দলের মধ্যে যে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে, দলটির নেতারাই তার সমাধান করবেন। আশা করি, তারা সমস্যা সমাধান করে আসবেন।

বিরোধীদলীয় নেতা বা উপনেতার স্বীকৃতি দেয়ার একক ক্ষমতা স্পিকারের। কিন্তু এ বিষয়ে সংবিধানে কিছু উল্লেখ নেই। আবার কার্যপ্রণালি বিধিতে বিস্তারিত বিশেষ নির্দেশনাও নেই। কার্যপ্রণালি বিধিতে ২(১) (ট) বলা আছে ‘বিরোধীদলীয় নেতা’ অর্থ স্পিকারের বিবেচনামতে যে সংসদ সদস্য সংসদে সরকারি দলের বিরোধিতাকারী সর্বোচ্চ সংখ্যক সদস্য লইয়া গঠিত ক্ষেত্রমতে দল বা অধিসঙ্গের নেতা।

সংসদীয় দলের সভা ডেকেছেন রওশন
এদিকে জাতীয় পার্টির সংসদীয় দলের সভা আহবান করেছেন রওশন এরশাদ। আগামী ৮ সেপ্টেম্বর বেলা ৩টায় জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতার সভা কক্ষে এই সভা অনুষ্টিত হবে। এ প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, আগামী ৮ সেপ্টেম্বর জাতীয় পার্টির সংসদীয় দলের সভা অনুষ্ঠিত হবে। এই সভায় বিরোধীদলীয় নেতার বিষয়টি ফয়সালা হবে। রওশন এরশাদ কেন সভা আহবান করলেন- এর জবাবে তিনি বলেন, যেহেতু বিরোধী দলীয় নেতা বর্তমানে নেই। ফলে উপনেতাই এই সভা আহ্বান করবেন।

ইসিতে চিঠি
অপরদিকে রওশন এরশাদকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করে তার স্বাক্ষর ছাড়া অন্য কারও স্বাক্ষর গ্রহণ না করতে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) চিঠি দিয়েছে দলটির একটি অংশ। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে আগারগাঁওয়ে ইসি কার্যালয়ে চিঠি পৌঁছে দেওয়া হয়। রওশনপন্থীদের অন্যতম নেতা জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ফখরুল ইমাম এমপি এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, দলের গঠনতন্ত্র নির্বাচন কমিশনে আগেই জমা দেওয়া আছে। আমরা সুনির্দিষ্ট ধারা উল্লেখ করে জানিয়েছি- এখন থেকে দলের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন রওশন এরশাদ। দলের গঠনতান্ত্রিক নিয়মে নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। এখন থেকে রওশন এরশাদের স্বাক্ষর ছাড়া যেন অন্য কারও স্বাক্ষর গ্রহণ না করা হয়, এ বিষয়টি জানানো হয়েছে।

দলের একটি সূত্র জানায়, নির্বাচন কমিশনে জিএম কাদেরের পক্ষ থেকেও একটি চিঠি দেয়া হয়েছে। কিছুদিন আগে ইসিতে চিঠিটি পৌঁছানো হয়।

রওশনের নেতৃত্বে ১৩ সদস্যের সংসদীয় বোর্ড গঠন
রওশন এরশাদের নেতৃত্বে দলের সংসদীয় বোর্ড গঠন করেছেন জাতীয় পার্টির একটি অংশ। রংপুর-৩ আসনের উপ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী নির্ধারণে ১৩ সদস্যের এই বোর্ডে জিএম কাদেরকেও রাখা হয়েছে। কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে মসিউর রহমান রাঙ্গার নাম রয়েছে। রওশন এরশাদের পার্লামেন্টারি বোর্ডের বাকী সদস্যরা হলেন- ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, রুহুল আমিন হাওলাদার, মুজিবুল হক চুন্নু এমপি, কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান, গোলাম কিবরিয়া টিপু এমপি, ফখরুল ইমাম এমপি, সুনীল শুভ রায়, আতিকুর রহমান আতিক এবং মজিবুর রহমান সেন্টু।


আরো সংবাদ