১৯ অক্টোবর ২০১৯
খুলনায় বিএনপির কালো পতাকা মিছিল

গণতন্ত্র রক্ষায় নেতাকর্মীরা সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তত: নজরুল ইসলাম মঞ্জু

খুলনায় বিএনপি নেতাকর্মীদের কালো পতাকা মিছিল - নয়া দিগন্ত

বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেছেন, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে আগামী ১ নভেম্বর থেকে আন্দোলনের নতুন কর্মসূচি আসছে। এই আন্দোলনকে একদলীয় অবৈধ ফ্যাসিস্ট সরকারকে হঠানোর শেষ আন্দোলন অভিহিত করে তিনি বলেন, এখানে জয়ের কোন বিকল্প নেই।


জয়ের জন্য নিজেদেরকে প্রস্তত করার আহবান জানিয়ে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারের জন্য নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান তিনি।

গ্রেনেড হামলা মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ফরমায়েশি রায়ের প্রতিবাদে রোববার নগরীর কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয়ের সামনে কালো পতাকা মিছিল পূর্ব প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান মুরাদের পরিচালনায় সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশারফ হোসেন, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, রেহানা আক্তার, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইকবাল হোসেন, ফখরুল আলম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, মাহবুব কায়সার, সিরাজুল হক নান্নু, নজরুল ইসলাম বাবু, মেহেদী হাসান দীপু, মহিবুজ্জামান কচি, শফিকুল আলম তুহিন, শাহিনুল ইসলাম পাখী, আজিজুল হাসান দুলু, ইকবাল হোসেন খোকন, জালু মিয়া প্রমুখ।

বক্তব্যে নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, মিথ্যা মামলায় অন্যায়ভাবে বিএনপির চেয়াপারসেন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে সাজা দেয়া হয়েছে। তিনি অভিযোগ করেন, আওয়ামী লীগ একটি ফোরাম তৈরি করেছে, যারা মামলার রায় লেখে। আর বিচারকরা নিজেদের চাকরি বাঁচাতে সেই রায় শুধু পাঠ করে।

আওয়ামীলীগের উদ্দেশ্যে তিনি প্রশ্ন রাখেন, এতো উন্নয়ন আর জনসমর্থনের দাবি করেন, তাহলে একটি অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে ভয় কেন? তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছে। এখন জনতার বিজয়ের জন্য সময়ের অপেক্ষা।

তিনি আরো বলেন, সরকার বলছে, তারা জাতীয় ঐক্যে ভয় পায়না। কিন্ত তারা যে ভয় পায় তা মন্ত্রীদের বেসামাল কথাবার্তায় প্রমাণ হয়ে গেছে।

সমাবেশ শেষে বিএনপির নেতাকর্মীরা কলো পতাকা মিছিল বের করার সময় থানার মোড়ে বিপুল সংখ্যক পুলিশ অবস্থান নিযে তাদেরকে বাঁধা দেয়।


আরো সংবাদ