২৬ মার্চ ২০১৯

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে বিএনপিকর্মীর চিঠি

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বিএনপিকর্মীর চিঠি - সংগৃহীত

কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আবেদন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন বিএনপির এক কর্মী। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে গিয়ে নিজ হাতে দিয়ে আসা চিঠিতে শামসুল আলম নামে ওই কর্মী লিখেছেন, আমি আপনার (প্রধানমন্ত্রীর) ছোট ভাই শেখ রাসেল না হতে পারি আপনার ভাইয়ের বয়সী একজন ছোট ভাই হিসাবে ও দেশের একজন নাগরিক হিসাবে আপনার নিকট আবেদন করতে চাই যে, আপনি বেগম খালেদা জিয়ার মামলা, মামলার রায় এবং কারাবাস সকল বিষয়ে অবগত আছেন। তিনি অসুস্থ, বয়স্ক, দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী, বিরোধীদলীয় নেতা ও বিএনপির চেয়ারপাসন-এই বিষয়গুলি বিবেচনা করে তাকে মুক্তি দিন। আমি তাকে মুক্তি দেওয়ার জন্য আপনার নিকট বিনীতভাবে অনুরোধ করছি।

শামসুল আলম আরো লিখেছেন, যেহেতু বিপদ-আপদের কোন হাত পাঁ নেই, আল্লাহ্ সবকিছুর নিয়ন্ত্রক। আপনাকে কথা দিলাম, ওয়াদা করলাম, আপনার কোন কারনে বা বিপদে যদি কারো নিকট কোন বিষয়ে আবেদন করতে হয় আমি করব। আপনার একজন ছোট ভাই হিসাবে, আমার মত ছোট মানুষ আপনার কাজে লাগতে পারলে নিজকে ধন্য মনে করব। শুধু তাই নয়, মানব কল্যানে যে কোন বিষয়ে আমার মত ছোট মানুষকে আপনি ডাকলে আমি অবশ্যই সাড়া দিব এবং হাজির হয়ে যাব। খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে সার্বিক ব্যবস্থা গ্রহন করতে আপনাকে আমি বিশেষ ভাবে অনুরোধ করছি।

চিঠিতে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট প্রধানমন্ত্রীর পরিবারের সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন আলম।

সাবেক ছাত্রনেতা শামসুল আলম ঢাকা মহানগর বিএনপির রাজনীতির সাথে যুক্ত ও লক্ষীপুর জেলা বিএনপির সদস্য। নয়া দিগন্তকে তিনি বলেন, দলের নেতারা বলছেন আইনী উপায়ে বেগম জিয়ার মুক্তি সম্ভব নয়। অন্যদিকে কর্মসূচিও নেই। তাই বিবেকের দংশন থেকেই প্রধানমন্ত্রীর কাছে নেত্রীর মুক্তি চেয়ে চিঠি দিয়েছি।


আরো সংবাদ