২৪ অক্টোবর ২০১৯

এবারের ঈদে একদিকে ডেঙ্গু আতঙ্ক, অন্যদিকে দুর্ভোগ : মির্জা ফখরুল

এবারের ঈদে একদিকে ডেঙ্গু আতঙ্ক, অন্যদিকে দুর্ভোগ : মির্জা ফখরুল - ছবি : নয়া দিগন্ত

সারা দেশবাসীকে ঈদ উল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এবারকার ঈদ মানুষের মধ্যে অনেক সমস্যা নিয়ে এসেছে। একদিকে ডেঙ্গু আতঙ্গ অন্যদিকে ঈদমুখো মানুষের দুর্ভোগ। ডেঙ্গু আতঙ্কে দেশবাসী ভূগছে কারণ সারাদেশে ৮০ জনের মতো মানুষ মারা গেছে এবং হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। কিন্তু সিটি কর্পোরেশন এবং সরকারের ব্যর্থতা-অবস্থাপনার কারণে ডেঙ্গু আজ মহামারী আকাড় ধারণ করেছে। তবুও আশা করবো সকল দুর্ভোগ কাটিয়ে দেশের মানুষ ঈদের আনন্দ ভাগ করে নেবে এবং ঈদ উদযাপন করবে।

রোববার সকাল ১০টায় ঠাকুরগাঁও শহরের তিতুমীর সড়কস্থ বাসভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি ।
মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ঈদে ঘরে ফিরতে সাধারণ মানুষের কষ্ট হচ্ছে। সরকারের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী যানজটের কথা অস্বীকার করলেও অপরিকল্পিত পরিবহণ ও যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে ঈদ পালন করতে ঘর মুখো মানুষের নাকাল অবস্থা।

এসময় জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সুলতানুল ফেরদৌস চৌধুরী , যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পয়গাম আলী, আনসারুল হক, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ, ছাত্রদলের নেতা কায়েসসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি প্রসঙ্গে বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে মিথ্যা মামলা দিয়ে আটক করে রাখা হয়েছে। কারণ এই দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা এবং তিনি মানুষের রাজনৈতিক আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিনিধিত্ব করেন। তিনি গণতন্ত্র-স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতীক। তিনি বাইরে থাকলে যারা শাসকগোষ্ঠী আওয়ামী লীগ, তারা জনগণের কাছে ঠিকমতো গ্রহণযোগ্যতা পায় না।

সকল অন্যায়ের প্রতিবাদ করেন তিনি, দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবার অভিজ্ঞতা আছে তার।এই সব কারণে সরকার নেত্রী কারারুদ্ধ করে রেখেছে। আমরা মনে করি সবগুলো বেআইনি এবং অনৈতিক। অবিলম্বে দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়া উচিৎ। এছাড়া তিনি অত্যন্ত অসুস্থ। তার সুচিকিৎসা করা প্রয়োজন।

মির্জা ফখরুল শনিবার নিজ জেলা ঠাকুরগাঁয়ে আসেন। ঈদ উল আজহা পালন করে তিনি ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেবেন।


আরো সংবাদ

কাশ্মিরকে এখনো বিরোধপূর্ণ অঞ্চল মনে করে যুক্তরাষ্ট্র : কংগ্রেস প্যানেল আফগান বিদ্রোহীদের সাথে বৈঠক করবে চীন আজ রায় : যেভাবে হয়েছিল নুসরাত হত্যাকাণ্ড ব্যাকটেরিয়া ঝুঁকি কমাতে সতর্ক দুগ্ধ উৎপাদনকারীরা মিয়ানমারে ৬ লাখ রোহিঙ্গা গণহত্যার ঝুঁকিতে প্রধানমন্ত্রী ন্যাম সম্মেলনে যোগ দিতে আজ আজারবাইজান যাচ্ছেন রাখে আল্লাহ মারে কে! প্রথম ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ শিরিন শিলা যেভাবে বিসিবি-ক্রিকেটার বিরোধের অবসান হলো জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তা সামছুদ্দোহার অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক খালেদা-তারেককে সাজা দেয়া জজদের পুরস্কৃত করার প্রতিবাদে আইনজীবীদের মানববন্ধন

সকল