১৫ অক্টোবর ২০১৯

মসজিদের শহর ঢাকাকে ক্যাসিনোর শহর বানিয়েছে আ’লীগ : রিজভী

রুহুল কবির রিজভী - ফাইল ছবি

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার মসজিদের শহর ঢাকাকে ক্যাসিনোর শহরে পরিণত করেছে। তিনি বলেন, সরকারের সর্বগ্রাসী দুর্নীতিতে আজ বিপর্যস্ত দেশ।

আজ সোমবার সকালে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, ‘বর্তমান মিডনাইট ও বিনাভোটের সরকারের সর্বগ্রাসী দুর্নীতিতে বিপর্যপ্ত আজ প্রিয় মাতৃভুমি বাংলাদেশ। শেয়ারবাজার, ব্যাংক, কয়লা, পাথর, পর্দা, বালিশ, টিন, বই, চা, চেয়ার, টেবিল- সবকিছুতেই দুর্নীতি গিজগিজ করছে। হঠাৎ বিস্ময়কর অভিযানে আবিষ্কার হলো শত শত কোটি টাকা, ক্যাসিনো, মদ ও জুয়ার আসরের খবর। শত শত বছরের মসজিদের শহর ঢাকা এখন ক্যাসিনোর শহরে উন্নতি লাভ করেছে।’

তিনি বলেন, ‘চারদিক ডুবে গেছে লুটপাট, খুন, ধর্ষণ, মদ, জুয়া, ক্যাসিনো, চাঁদাবাজী, অনাচারে। ক্ষমতাসীন সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজদের হরিলুটে গোটা দেশটা ফাঁপা ফোঁকলা হয়ে গেছে। ব্যাংকে টাকা না থাকায় এখন সরকারি, আধাসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের তহবিলে হাত দেয়া হয়েছে। এই অবস্থায় একটি ইতিবাচক আলোচনায় থাকতে দুর্নীতি-অনাচারের বিরুদ্ধে আকস্মিক অভিযান আইওয়াশ কিনা এ নিয়ে জনমনে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে। কারণ লোক দেখানো এ অভিযানে অধরাই থেকে যাচ্ছেন মাদক ও দুর্নীতিবাজদের গডফাদাররা। কারণ এবারের আওয়ামী আমলে সমগ্র বাংলাদেশটাই ডন গডফাদারদের কব্জায়।’

তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের ব্যাংকগুলো সব দেউলিয়া করে আওয়ামী লীগ-যুবলীগ নেতাদের ঘরে ঘরে এখন ব্যাংক, টাকশাল বানানো হয়েছে। বিদেশে লাখ লাখ কোটি টাকা পাচার করছে, পাচারের পর উদ্বৃত্ত টাকা থেকে যাচ্ছে ঘরে। দেশটাই দেউলিয়া করে দিচ্ছে।’

রিজভী বলেন, ‘সরকারি দলের অংগসংগঠনের চুনোপুঁটি নেতারা আঙ্গুল ফুলে একেকটা বটগাছ হয়ে গেছে। ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ফুটবল ক্লাবগুলো দখল করে তারা জুয়া আর ক্যাসিনো ক্লাবে পরিণত করেছে ক্ষমতাসীন রাঘববোয়াল এমপি-মন্ত্রীরা। এছাড়া পাড়ায় পাড়ায় আওয়ামী সন্ত্রাসীরা টর্চার সেল তৈরি করে সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের ধরে নিয়ে আদায় করে মোটা অংকের টাকা।’

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, “আওয়ামী লীগ-যুবলীগের দুর্নীতি, লুটপাট, অবৈধ অস্ত্র, সন্ত্রাস, টর্চার সেল, নির্যাতন, দখল, চাঁদাবাজি, ক্যাসিনোসহ গুরুতর সব অপরাধের থলের বিড়াল বেরিয়ে আসার কারণে হিতাহিত জ্ঞানশূন্য হয়ে পড়েছেন ওবায়দুল কাদের, মাহবুবুল আলম হানিফ আর হাছান মাহমুদ সাহেবরা। তারা বলছেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান নাকী দেশে প্রথম জুয়া চালু করেছেন। আর ঢাকাকে ক্যাসিনোর শহর বানিয়েছে নাকী বিএনপি! তাদের বক্তব্য শুনে একটি প্রবাদের কথা মনে হচ্ছে: ‘দুর্জনের ছলের প্রয়োজন হয়, দুর্বৃত্তের প্রয়োজন হয় মিথ্যার।’ দেশে ক্ষমতাসীনরা কোন কেলেংকারী করলে যখন আর সামাল দিতে পারে না তখন তারা জনগনের দৃষ্টি ভিন্নখাতে নিতে দোষ উদর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপায়। তারা ফেঁসে গেলে সব দোষ বিএনপির। গণতন্ত্রে জবাবদিহীতা থাকে সুতরাং দেশে সুষ্ঠু নির্বাচনে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা জারি থাকলে বর্তমান সময়ের মতো লুটপাটের অলম্পিক উৎসব চলতো না।”

রিজভী আরো বলেন, জিয়াউর রহমান এদেশে বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রর্বতক, আর আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র হত্যা করে একদলীয় বাকশালের প্রবর্তক। সুতরাং শহীদ জিয়ার আমলে ক্যাসিনো ও মাদকের নামই মানুষ জানত না। আর একদলীয় শাসনে জবাবদিহিতা থাকে না বলেই মাদক, ক্যাসিনো আর দুর্নীতি মহা ধুমধামে চলতে থাকে। বর্তমানেই তাই চলছে। দুর্নীতির ডাক নাম এখন আওয়ামী লীগ।

এ সময় তিনি অবিলম্বে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করেন।


আরো সংবাদ