২২ নভেম্বর ২০১৯

আজ আন্দোলনের কৌশল ঠিক করলে কালই সরকারের পতন : দুদু

শামসুজ্জামান দুদু - ফাইল ছবি

বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও কৃষকদলের আহ্বায়ক শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, গণবিরোধী সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের কৌশল ঠিক করতে পারলেই সরকারের পতন ত্বরান্বিত হবে।

আজ শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে তারেক পরিষদ আয়োজিত ‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা এবং গণতন্ত্রের মুক্তি কোন পথে?’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তারেক পরিষদের সভাপতি সাহিদুল ইসলাম লরেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য মেজর (অব:) মো: হানিফ, যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান, কৃষক দলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য লায়ন মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার, কে এম রকিকুল ইসলাম রিপন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘আমরা কিভাবে রাস্তায় নামবো এবং কিভাবে আন্দোলন করে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনবো এই পথটি আমরা বের করতে পারলেই সরকারের পতন হবে। আজকে বের করতে পারলে কালকেই সরকারের পতন হবে। কালকে বের করতে পারলে পরশু সরকারের পতন হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আন্দোলনের কৌশল ঠিক করতে হবে। রাস্তার আন্দোলন হবে কৌশলগত কারণে।’

সাবেক এ ছাত্রনেতা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কথা রাখেননি। তিনি বলেছিলেন উন্নত গণতন্ত্র দেবেন। ১০ টাকা সের চাল খাওয়াবেন। ঘরে ঘরে চাকরি দেবেন, কৃষকদেরকে ফ্রি সার দেবেন। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের একটা কবিতা আছে না- ‘কেউ কথা রাখেনি...’- আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও কথা রাখেননি।’

ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি বলেন, সদ্য মরহুম বিএনিপর ভাইস-চেয়ারম্যান ও অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের সবশেষ মেয়র সাদেক হোসেন খোকাকে সরকার যথাযথ সম্মান দিতে ব্যর্থ হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘কালকে আমরা একজন মুক্তিযোদ্ধাকে শেষ বিদায় জানিয়েছি। বিএনপির নাকি কোনো জনপ্রিয়তা নাই। গতকাল ঢাকা শহর ছিল বিএনপির, ঢাকা শহর ছিল বেগম জিয়ার, ঢাকা শহর ছিল সাদেক হোসেন খোকার। সরকার তাকে যথাযথ সম্মান দিতে ব্যর্থ হয়েছে। একজন গেরিলা মুক্তিযোদ্ধাকে যথাযথ সম্মান দিতে ব্যর্থ হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের নেত্রী এখন জেলখানায়। বাস্তবতা হলো আমাদের নেত্রীকে চিকিৎসার জন্য কোর্টের অর্ডার নিতে হয়। কোর্ট অর্ডার দিলেও সরকার তার চিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা করছে না। আমরা এমনই একটি সভ্য জাতি যে, তিনবারের প্রধানমন্ত্রীকে চিকিৎসার জন্য কোর্টের আশ্রয় নিতে হয়। দেশের সকল মানুষ জানে, বেগম জিয়া শারীরিকভাবে অত্যন্ত খারাপ অবস্থায় আছেন। কিন্তু সরকার এবং পিজি (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের ডাইরেক্টর বলেন- ‘না, তিনি অসুস্থ নন’।’


আরো সংবাদ