০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

নতজানু আ’লীগ সরকার ভারতের কাছে দয়া চায় : মির্জা ফখরুল

বুধবার সকালে ঠাকুরগাঁওয়ে নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর - নয়া দিগন্ত

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন,‘ভারত আমাদের ভালো বন্ধু, তাদের সাথে আগের চেয়ে আমাদের সম্পর্ক এখন আরো বেশি ভালো। তারা মুক্তিযুদ্ধের সময় আমাদের সহযোগিতা করেছে, আমাদের আশ্রয় দিয়েছে, তাদের সেনাবাহিনী আমাদের জন্য যুদ্ধ করেছে। তাই ভারত আমাদের ভালো বন্ধু। বুধবার সকালে ঠাকুরগাঁও শহরের কালিবাড়িস্থ নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল আরো বলেন, ভারত আমাদের সীমান্তের চারপাশে কাঁটাতারের বেড়া দিয়েছে। সীমান্তে বাংলাদেশীদের গুলি করে মারছে। তিস্তার পানি দিচ্ছে না। ফারাক্কা বাঁধ দিয়ে রেখেছে। দুই দেশে ১৫৮ টি অভিন্ন নদী রয়েছে সেগুলোর আইন তারা মানছে না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ভারত বাংলাদেশের ফেনী নদীসহ বিভিন্ন নদীর প্রায় ৪০টি পয়েন্ট থেকে ভারী পাম্প দিয়ে নিয়মিত পানি উত্তোলন করছে। আমরা তো অনেক দয়ালু, তাই আমরা তাদের দেশের মানুষের কষ্টের কথা ভেবে পানি দিয়েছি। কিন্তু তারা তো আমাদের দেশের মানুষের কথা ভেবে পানি দেয় না।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের সরকার এতোই নতজানু যে, তারা ভারতের কাছে দয়া চায়, যদি তারা দয়া করে কিছু দেয়। অধিকার আদায়ের জন্য জোরালো ভাবে কিছু চাইতে পারে না। কারণ এ সরকার হলো অনির্বাচিত সরকার, ফলে কোন জায়গায়ই বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করতে পারে না। রোহিঙ্গাদের ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। এখন পর্যন্ত একজন রোহিঙ্গাকেও প্রত্যাবাসন করতে পারেনি সরকার।

মির্জা ফখরুল আরো বলেন, সরকার দেশের সকল গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে ফেলেছে সরকার। কোথাও মানুষের গণতান্ত্রিক কোনো অধিকার নেই। দেশে আজ গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নেই। গণমাধ্যম কর্মীরা খুন হচ্ছে, নির্যাতিত হচ্ছে, অথচ এসবের কোনো বিচার হচ্ছে না। সরকার দেশের বিচার ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করছে। সর্বত্র অরাজকতায় ছেয়ে গেছে। দেশবাসী এসব অন্যায় অবিচার থেকে মুক্তি চায়।


আরো সংবাদ