১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

‘আমাগরে জীবন বাঁচান’

সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে বন্যায় গৃহহীন দুই বৃদ্ধা - ছবি : নয়া দিগন্ত

সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলা সদর থেকে দক্ষিণ পূর্বদিকে বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধ ধরে দশ কিলোমিটার এগোলে শুভগাছা গ্রাম। বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধের দুই পাশেই গ্রাম। গতকাল শনিবার দুপুর ১২টায় সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, গ্রামের প্রায় সব বাড়িঘরেই বন্যার পানি ছুঁই ছুঁই করছে। গ্রামের পাশে ফসলের ক্ষেত এখন এক রকম দরিয়া। সেই দরিয়ায় দাঁড়িয়ে কৃষক কেরামত আলী তার ডুবে যাওয়া পাটক্ষেত দেখছেন। সেখানে সবুজ পাতার কোনো চিহ্ন নেই। পাটক্ষেতের ওপর পানি আর পানি। কেরামত আলীর দুই চোখ দিয়ে গড়িয়ে পড়ছে অশ্রু। কেরামত আলীর মতো গ্রামের অন্য কৃষকেরও চোখ দিয়ে অশ্রুই ঝরছে। শুভগাছা ছেড়ে সামনে এগোলেই বীরশুভগাছা গ্রাম। সেখানে দেখা হয় গৃহবধূ রোজিনা বেগমের সাথে। তিনি বাড়ির জিনিসপত্র গোছাচ্ছেন। চলছে পানির ভয়ে নিরাপদ আশ্রয়ে যাওয়ার আয়োজন। রোজিনা বলছেন, ‘পানি আমগরে জীবন বাঁচাই। সেই পানিতি ডুবে যাইতেছি। এখন গরু-ছাগল, হাঁস-মুরগি কনে রাখি?’ 

গ্রামের আবদুল গফুর তিন বিঘা জমিতে আউশ-আমনের আবাদ করেছিলেন। তার ক্ষেতও এখন দরিয়া। তিনি বলেন, ‘ঈদের আগে আল্লাহর গজব নাইমে আইছে। আমগরে সব আনন্দ পানিতে ভাইসে গেছে’। কাজিপুর সদর, মাইজবাড়ী ও শুভগাছা ইউনিয়নের ৯টি গ্রামের বাড়িঘর পানিতে ডুবে গেছে। এতে বিপাকে পড়েছেন দুই শতাধিক পরিবারের মানুষ। ভাঙনের কবলে পড়েছে এলাকার বাড়িঘর ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। শুভগাছা ইউপি ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য নয়ন সরকার পানিবন্দী ও ভাঙনের কথা স্বীকার করে বলেন, পানিবন্দী ও ভাঙনকবলিত লোকজনের তালিকা করে ইউএনও অফিসে দেয়া হবে।


আরো সংবাদ

সৌদি তেল স্থাপনায় হামলার পর মধ্যপ্রাচ্যে আরেকটি যুদ্ধ আসন্ন? কিশোর গ্যাং : যেভাবে গড়ে ওঠে দুর্ধর্ষ কিশোর অপরাধীদের দল সৌদিতে ড্রোন হামলা : বিনা প্রমাণে কাউকে দোষারোপ না করতে চীনের আহ্বান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে কাশ্মিরে যাওয়ার ঘোষণা ভারতের প্রধান বিচারপতির জাবি ভিসির অনিয়ম খতিয়ে দেখবে ইউজিসি পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হলে দিলিপ ঘোষকে যশোহর পাঠিয়ে দেবো তিন হাজার ৫ কোটি টাকা রাষ্ট্রের ক্ষতি ওমরাহর খরচ বাড়ছে, সৌদি ফি নিয়ে ধূম্রজাল রোমের রাস্তায় কুড়িয়ে পাওয়া অর্থ ফেরত দিয়ে আলোচিত বাংলাদেশী তরুণ ফাঁসির রায় শুনে আসামি হাসে বাদি কাঁদে হাতিয়ায় ইলিশের জালে ২২ ভাসমান মহিষ

সকল