২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বাগাতিপাড়ায় স্কুলে যাওয়ার পথে ছাত্রী অপহরণের অভিযোগ

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় স্কুলে যাওয়ার সময় নবম শ্রেণির এক ছাত্রী নিখোঁজের ঘটনা ঘটেছে। তবে নিখোঁজ ছাত্রীকে অপহরণ করা হয়েছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হলেও প্রেমঘটিত কারণে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে পুলিশ জানিয়েছে। শনিবার দিবাগত রাতে মেয়ের বাবা থানায় এজাহার দাখিল করেছেন। ঘটনার পর দুই দিন অতিবাহিত হলেও সোমবার পর্যন্ত নিখোঁজ ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

এজাহারে ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বলেন, তার মেয়ে স্থানীয় একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। প্রতিদিনের মত শনিবার টিফিনের সময় সে বাড়ি গিয়ে খাওয়া শেষে স্কুলে ফিরছিল। পথে স্থানীয় ঈদগাহ মাঠের দক্ষিণ পার্শ্বে রাস্তায় পৌঁছলে সেখানে অপেক্ষা করা একই উপজেলার কালিকাপুর দিয়ারপাড়া গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের ছেলে ও বাঁশবাড়িয়া ডিগ্রী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র জিয়ারুল ইসলাম তার পথরোধ করে। এ সময় তার অপর তিন বন্ধুর সহযোগিতায় ছাত্রীর মুখে গামছা পেঁচিয়ে মোটরসাইকেলে নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। ঘটনার পর থেকে তার মেয়ে নিখোঁজ রয়েছে। মেয়েকে অপহরণ করা হয়েছে দাবি করে তাকে উদ্ধারে যথাযথ পদক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

নিখোঁজ ছাত্রীর ভাইয়ের দাবি, ঘটনার পর তারা অভিযুক্ত জিয়ারুলের বাড়িতে গিয়েছিলেন। তার বাড়ি থেকে অভিভাবকরা জানিয়েছে, জিয়ারুল ও মেয়েটি কোথায় আছে তা তারা জানেন না। ঘটনার পর থেকে জিয়ারুল ও তার সাথে আসা বন্ধুদের মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রওশন আলী জানান, দুই বছর আগে জিয়ারুল ইসলাম একই স্কুল থেকে এসএসসি পাস করে। ঘটনাটি প্রেমঘটিত হতে পারে বলে তিনি স্থানীয় সূত্রে জানতে পেরেছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সাজ্জাদ হোসেন জানান, মামলার প্রাথমিক তদন্তে ঘটনাটি প্রেমঘটিত বলে মনে হয়েছে। তবে আসামিদের গ্রেফতার এবং পূর্ণ তদন্ত শেষে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।


আরো সংবাদ