১৮ নভেম্বর ২০১৯

বগুড়ায় কিশোর-কিশোরীর আত্মহত্যা

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় গলায় ফাঁস দিয়ে পৃথক ঘটনায় কিশোরীর ফাতেমা খাতুন ও কিশোর আশরাফুল নামে দুইজন আত্মহত্যা করেছেন।
মঙ্গলবার আনুমানিক দুপুর দেড়টায় উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের জুয়ানপুর গ্রামের নুর হোসেনের মেয়ে ফাতেমা খাতুন (১৩) নিজ ঘর থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, ফাতেমাকে ঘরের বাইরে থেকে ডাকাডাকি করে। এ সময় ভেতর থেকে কোনো আওয়াজ না পাওয়ায় তার মা ঘরের ভিতর গিয়ে দেখেন তীরের সঙ্গে গলায় ওরনা পেঁচানো অবস্থায় ঝুলছে। ধারণা করা হচ্ছে মা, বাবার সঙ্গে অভিমান করে আত্মহত্যা করেছেন। ফাতেমা খাতুন মজিবর রহমান মজনু বালিকা বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী।

অন্যদিকে গতকাল সোমবার ৪ নভেম্বর সন্ধা ৭টায় উপজেলার বিরইল গ্রামের খয়বর ইসলামের ছেলে আশরাফুল ইসলাম ওরফে আসাদুল (১৪) নিজ ঘর থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, আশরাফুলকে ঘরের বাইরে থেকে ডাকাডাকি করেন তার দাদি। এ সময় ভেতর থেকে কোনো আওয়াজ না পাওয়ায় তার বাবাকে ডাক দিলে ঘরের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে দেখা যায় ফ্যানের সঙ্গে গলায় গামছা পেঁচানো অবস্থায় ঝুলছে। ধারণা করা হচ্ছে দাদি ও বাবার সঙ্গে খাবার এবং মোবাইল কিনে চেয়েছিল, কিনে না দেওয়ায় অভিমান করে আত্মহত্যা করেছেন।

শেরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবীর বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরে পৃথক পৃথক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়।


আরো সংবাদ