১২ ডিসেম্বর ২০১৯

ব্যাট-বল হারিয়ে ফেলায় ৫ শিক্ষার্থীকে পেটালেন দুই শিক্ষক

-

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে খেলতে গিয়ে স্কুলের ব্যাট-বল হারিয়ে ফেলায় চুরির অভিযোগ এনে ৫ শিক্ষার্থীকে পিটুনির ঘটনায় আতঙ্কে স্কুলে আসা বন্ধ হয়ে গেছে ওই শিক্ষার্থীদের। ঘটনাটি ঘটেছে, তাড়াশ পৌর এলাকার শোলাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে। প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষকের হাতে পিটুনি খাওয়া ওই শিক্ষার্থীরা ঘটনার পর থেকে স্কুলে আসেন না।

নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থী ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, গত রোববার শোলাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা দোবিলা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে ক্রিকেট খেলতে যায়। সেখানে বিদ্যালয়ের একটি ব্যাট ও বল হারিয়ে ফেলে। পরদিন সোমবার ওই শিক্ষার্থীরা স্কুলে ব্যাট-বল জমা দিতে গিয়ে একটি ব্যাট ও বল দিতে পারেনি।

এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক আহম্মেদ আলী শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে ‘ব্যাট-বল চুরির’ অভিযোগ এনে অফিস রুমে ডেকে পাঠান। পরে প্রধান শিক্ষক আহম্মেদ আলী ও সহকারী প্রধান শিক্ষক ইউনুস আলী সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী শাহিন আলম, নবম শ্রেণীর রিন্টু, আবুল বাশার, ষষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থী সৌরভ ইসলাম ও কামরুল ইসলামকে বেত দিয়ে বেধরক পেটান।

শিক্ষার্থীরা জানায়, খেলতে গিয়ে ব্যাট-বল হারিয়ে গেছে। অথচ দুই শিক্ষক আমাদের বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ এনে ৫জনকে পেটাতে থাকেন। পেটাতে পেটাতে তারা ৪টি বেত ভেঙ্গে ফেলেন। এছাড়া চড়, থাপ্পড় দেয়ার পাশাপাশি গালাগাল করেন। এ ঘটনার পর আতঙ্কে ওই ৫ শিক্ষার্থী আর স্কুলে আসছে না।

এ প্রসঙ্গে নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী রিন্টুর বাবা ও ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শরিফুল ইসলাম বলেন, এমন ঘটনায় শিক্ষার্থীদের পেটানোটা অনুচিত। তবে বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টা চলছে।

মারপিট প্রসঙ্গে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আহম্মেদ আলী জানান, শিক্ষার্থীরা বেপরোয়া তাই তাদের সামান্য চড়, থাপ্পর দেয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফকির জাকির হোসেন জানান, শিক্ষার্থীদের শারীরিক নির্যাতন করা ঠিক হয়নি। বিষয়টি জেনে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো সংবাদ