১৯ জুন ২০১৯

তানিয়ার বিস্ময়কর মুক্তাঝরা লেখা, কব্জি দিয়ে লিখেই দিচ্ছে এইচএসসি পরীক্ষা

পরীক্ষা দিচ্ছে তানিয়া খাতুন - ছবি : নয়া দিগন্ত

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে দুই হাতের কব্জি দিয়ে লিখে চলতি এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে তানিয়া খাতুন। দুটি হাতেরই আঙ্গুল নেই। কিন্তু তাই বলে পিছিয়ে থাকতে নারাজ তানিয়া। সুস্থ স্বাভাবিক শিক্ষার্থীর মতোই তানিয়া কব্জি দিয়ে লিখে পরীক্ষা দিচ্ছে এবং অন্য শিক্ষার্থীদের চেয়ে তার হাতের লেখা খুবই সুন্দর, যেন মুক্তা ঝরছে।

শারীরিক প্রতিবন্ধী তানিয়া কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার সদর ইউনিয়নের নাগদাহ গ্রামের বীমাকর্মী তোফাজ্জল হোসেনের মেয়ে। দুই ভাই -বোনের মধ্যে তানিয়া বড়। জন্মের পর থেকে এভাবেই সে বড় হয়ে উঠে। তার দুটি হাত অচল হলেও কখনো দমেনি লড়াকু সৈনিক তানিয়া। শারীরিক প্রতিবন্ধকতা তাকে কঠোর পরিশ্রম করা শিখিয়েছে।

২০১৭ সালে তানিয়া পূর্ব চন্দ্রখানা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৩.৪৫ পয়েন্টে পেয়ে এসএসসি পাশ করে । এ বছর ফুলবাড়ী মহিলা ডিগ্রী কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে সে।

সোমবার সকালে ফুলবাড়ী ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, কলা-বিভাগের শিক্ষার্থী হিসাবে ওই কেন্দ্রে তৃতীয় তলায় ৩০২ নম্বর কক্ষে ইংরেজি বিষয়ের পরীক্ষা দিচ্ছে সে। তানিয়ার রোল নম্বর ২৯৮৩৫৮। সে শারীরিক প্রতিবন্ধী হওয়ায় তাকে ২০ মিনিট সময় বাড়তি সময় দেয়া হয়েছে। কিন্তু বাড়তি সময় লাগে না তার। অন্য শিক্ষার্থীদের মতোই নির্ধারিত সময়ে পরীক্ষা দিতেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে সে।
তানিয়া জানায়, সকলে আমার জন্য দোয়া করবেন। আমি যেন ভাল রেজাল্ট করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে উচ্চ শিক্ষিত হতে পারি।

ফুলবাড়ী ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব আমিনুল ইসলাম রিজু জানান, তানিয়া খাতুন অন্য শিক্ষার্থীদের মতোই প্রতিটি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। শারীরিক প্রতিবন্ধী হওয়ায় তাকে বাড়তি ২০ মিনিট দেয়া হচ্ছে।


আরো সংবাদ