২৩ অক্টোবর ২০১৯
রংপুর-৩ উপ-নির্বাচন

প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বিতায় লাঙ্গল-ধানের শীষ

রংপুরে দলীয় কর্মীদের সাথে সাদ এরশাদ - ছবি : নয়া দিগন্ত

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এর মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে মঙ্গলবার। মোট ৫ জন প্রার্থী প্রতীক বরাদ্দ পেলেও প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মাঠে থাকবে লাঙ্গল এবং ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী।

মঙ্গলবার বিকেলে রংপুর আঞ্চলিক রিটার্নিং কর্মকর্তা ও এই আসনের উপ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা জিএম সাহাতাব উদ্দিন জানান, মোট ১২ জন প্রার্থী মনোনয়ন তুলেছিলেন। এরমধ্যে দাখিল করেছিলেন ১১ জন। শেষ দিনে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী এ্যডভোকেট রেজাউল করিম রাজু। মঙ্গলবার বৈধ ৬ প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

এরমধ্যে মরহুম হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের পুত্র জাতীয় পার্টি ও মহাজোট মনোনিত প্রার্থী রাহগীর আল মাহী সাদ এরশাদ পেয়েছেন লাঙ্গল, বিএনপি’র প্রার্থী রিটা রহমান শীষ, এরশাদের ভাতিজা স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ মোটরগাড়ি, এনপিপি’র শফিউল আলম আম, গণফ্রটর কাজী মাঃ শহীদুল্লাহ মাছ এবং খলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মন্ডল দেয়াল ঘড়ি প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন।

এদিকে প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার সাথে সাথেই প্রার্থীরা প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন। মহাজোট প্রার্থী সাদ এরশাদ পল্লী নিবাসে পিতার কবর জিয়ারত করে প্রচারণা শুরু করেন। অন্যদিকে খেলাফত মজলিশের প্রার্থী তৌহিদুর রহমান মন্ডল রাজু মাওলানা কেরামত আলী জৈনপুরির মাজার জিয়ারত করে নির্বাচনী প্রচারনা শুরু করেছেন। এছাড়াও বেলা ২ টার পর থেকেই শুরু হয়েছে পুরো নির্বাচনী এলাকায় প্রার্থীদের মাইকিং। সাটানো হচ্ছে পোস্টার। বিলি করা হচ্ছে লিফলেট। তবে এবারের এই নির্বাচনে প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বিতায় থাকছেন জাতীয় পার্টির লাঙ্গলের প্রার্থী রাহগীর আল মাহী সাদ এরশাদ এবং বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী রিটা রহমান। ২০১৮ সালের নির্বাচনে রিটা রহমান ৫৩ হাজার ভোট পেয়ে চমক দেখিয়েছিলেন। সে সময় নির্বাচিত হয়েছিলেন জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক প্রেসিডেন্ট হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তাঁর মৃত্যুতেই আসনটি শুণ্য হওয়ায় উপ নির্বাচন হচ্ছে। আগামী ৫ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে ভোট। রংপুর সদর উপজেলা এবং রংপুর সিটি করপোরেশনের ১-৮ নম্বর ওয়ার্ড ছাড়া বাকি এলাকা নিয়ে গঠিত রংপুর-৩ আসনে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৪১ হাজার ৬৭৩ জন। এই আসনে ভোটকেন্দ্র ১৩০টি, ভোটকক্ষ ৯১০টি।


আরো সংবাদ