১৮ নভেম্বর ২০১৯

পান কেনা নিয়ে যুবককে হত্যা : ১৯ বছর পর রায় পেল পরিবার

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে পান কেনা নিয়ে দ্বন্দ্বে যুবককে হত্যা মামলায় পুত্রের যাবজ্জীবন ও পিতার ৭ বছরের কারাদণ্ডের রায় দিয়েছে আদালত। মঙ্গলবার জেলা ও দায়রা জজ মুন্সী রাফিউল আলম এ রায় দেন। কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- উলিপুর উপজেলার দলদলিয়া ইউনিয়নের উত্তর দলদলিয়া গ্রামের পেয়ারুল ইসলাম ও তার পুত্র নুরনবী (২০)।   

আদালত সূত্র জানায়, ২০০০ সালের ৪ এপ্রিল রাজারহাট উপজেলার নাজিমখান ইউনিয়নের মনারকুটি গ্রামের আব্দুল হাই সরকারের পুত্র শাহ আলম-স্বপন (২২) এবং পার্শ্ববর্তী উলিপুর উপজেলার দলদলিয়া ইউনিয়নের উত্তর দলদলিয়া গ্রামের পেয়ারুল ইসলামের পুত্র নুরনবী পান কেনাকে কেন্দ্র করে বাক-বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে নুরনবী তার পরিবারের কয়েকজনকে নিয়ে শাহ আলমের (স্বপন) ওপর চড়াও হয়ে পাঁজরে ছুরিকাঘাত করেন। গুরুতর আহতাবস্থায় স্বপনকে রাজারহাট উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় ওইদিন রাতে তার চাচা মকবুল রহমান বাদী হয়ে রাজারহাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি ছিলেন অ্যাডভোকেট এসএম আব্রাহাম লিংকন ও আসামিপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট ইয়াসিন আলী সরকার। সূত্র : ইউএনবি।


আরো সংবাদ