২২ নভেম্বর ২০১৯

এজলাসে নিজের গলা কেটে আত্মহত্যা করতে চাইল আসামি

নীলফামারীতে আদালতের এজলাসে গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন মোটর সাইকেল চুরি মামলার এক আসামী। তাকে আদালতের নির্দেশে নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে চিকিৎসা চলছে তার।

সোমবার দুপুরে নীলফামারী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শুনানীকালে এই ঘটনা ঘটে।
জাহিদুল ইসলাম শুভ(৩০) নামে এই আসামীর বাড়ি চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামে। সেখানকার আব্দুল মান্নানের ছেলে।

আইনজীবী আল মাসুদ চৌধুরী জানান, সৈয়দপুর থানার একটি চুরি মামলায় তাকে শ্যোন এ্যারেষ্ট দেখানোর জন্য শুনানি চলছিলো। তাকে মিথ্যাভাবে জড়ানো হচ্ছে যার কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে গলায় আঘাত করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে সে। তাৎক্ষনিকভাবে আদালতের নির্দেশে পুলিশ প্রহরায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

সৈয়দপুর জিআরও ফজলুল হক জানান, ঠাকুরগাঁওয়ে একটি চুরির মামলায় গেল ৩ অক্টোবর শুভসহ চারজন আটক হন। এরআগে গত ২৬ সেপ্টেম্বর সৈয়দপুর থেকে তিনটি মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা ঘটে।

এই চুরির মামলায় তদন্ত করে ঠাকুরগাঁওয়ে আটক হওয়া চারজনের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়। এই মামলায় শ্যোন অ্যারেস্টের আবেদন করায় তাদের আদালতে হাজির করা হয়।

তিনি বলেন, দুপুরে আদালতে শুনানী চলাকালে শুভ তার হাতকড়া দিয়ে নিজের গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এতে তার গলার কিছু অংশ কেটে যায়।

নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, হাতকড়া বা কলমের মত ভোতা কোন কিছু দিয়ে গলায় আঘাত করা হয়েছে। রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক নয় বলেও জানান তিনি।


আরো সংবাদ