২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সড়কে গাছের গুড়ি ফেলে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে ডাকাতি

ফরিদপুরে সড়কে গাছের গুড়ি ফেলে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার রুপাপাত ইউনিয়নের বনমালিপুর এলাকায় ফরিদপুর-কাশিয়ানী আঞ্চলিক সড়কের এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এসময় ডাকাতরা নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুটে নেয়।

পুলিশ ও ক্ষতিগ্রস্থ সূত্র জানায়, গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার রামদিয়া গ্রামের বাসিন্দা আছর মল্লিকের মা আয়েশা বেগম (৭৫) গুরুতর অসুস্থ হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার দুপুরে মারা যান আয়েশা বেগম। মায়ের মরদেহ নিয়ে ছেলে আছর মল্লিক বিকালে ঢাকা থেকে মাইক্রোবাসে করে গ্রামের বাড়ি কাশিয়ানির রামদিয়ার উদ্যোশ্যে রওনা হন। রাত সাড়ে ৩টার দিকে তারা ফরিদপুর-কাশিয়ানী আঞ্চলিক সড়ক ধরে ফরিদপুরের জেলার বোয়ালমারী উপজেলার রুপাপাত ইউনিয়নের বনমালিপুর এলাকায় পৌঁছায়। অ্যাম্বুলেন্সটি আসা মাত্রই রাস্তায় গাছের গুড়ি ফেলে তাদের মাইক্রোবাসের গতিরোধ করেন একদল ডাকাত। পরে তারা দেশীয় অস্ত্রের মুখে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সের যাত্রীদের কাছ থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুটে নেয়।

আছর মল্লিক জানান, আমার মায়ের মরদেহ নিয়ে ফেরার পথে রাস্তায় গাছের গুড়ি ফেলে প্রথমে আমাদের গাড়ির গতিরোধ করা হয়। পরে ১০-১২ জন মুখোশধারী ডাকাত অস্ত্রের মুখে আমাদের জিম্মি করে কাছে থাকা নগদ প্রায় ৫০ হাজার টাকা ও সাথে থাকা নারীদের স্বর্ণালংকার লুটে নেয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুরের পুলিশ সুপার আলিমুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে পুলিশের সাহায্য চাওয়া মাত্রই পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। তবে পুলিশ পৌঁছানোর আগেই ডাকাতরা পালিয়ে যায়। তিনি আরো জানান, ডাকাতদলকে ধরার জন্য অভিযান শুরু হয়েছে।


আরো সংবাদ