১৭ আগস্ট ২০১৯

সুস্থ থাকতে যোগব্যায়াম রঙের ফিচার

-

যোগব্যায়াম বা ইয়োগা এমনই এক মন্ত্র, যা জীবনকে নতুনভাবে চিনতে শেখায়। এনার্জি লেভেল বাড়াতে ম্যাজিকের মতো কাজ করে। আসন শুরুর আগে নিজের ইচ্ছা থাকা জরুরি। মন থেকে আগ্রহ নিয়ে অভ্যাস করলে সুফল পাওয়া যায়। ইয়োগার বিভিন্ন আসন শরীর ও মনের জন্য উপকারী।

যোগব্যায়াম হচ্ছে এনার্জির স্রোত। ইয়োগা করলে আমাদের শরীরে অনেক এনার্জি পাওয়া যায়। আমাদের বডি অনেক রিলেক্স ফিল করে। এনার্জি যত বাড়বে, আমরা তত অ্যাক্টিভ হতে থাকব। ইয়োগা আমাদের মস্তিষ্ককে রিল্যাক্স থাকতে সাহায্য করে। ইয়োগা করলে এসিডিটি বা কোনো ধরনের পেটের সমস্যা হয় না। কারণ, নিয়মিত ইয়োগা করায় আমাদের মাসল অ্যাক্টিভ হয়ে যায়। হজমশক্তির কোনো সমস্যা থাকলে তা ঠিক হয়ে যায়। প্রতিদিন ইয়োগা করায় আমাদের প্রতিদিনের টেনশন এবং ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। নিয়মিত ইয়োগা করার ফলে আমাদের শরীর বারবার খাদ্য গ্রহণ থেকে বিরত থাকে। আমাদের শরীর অনেক রিল্যাক্স ও ফ্লেক্সিবল হয়। শরীরের এনার্জি সোর্স অনেক বাড়িয়ে দেয়। ওয়েট লসের জন্য ইয়োগা ভালো কাজ করে। যারা দীর্ঘক্ষণ চেয়ারে বসে কাজ করেন তাদের কোমরে ও পিঠে ব্যথা হয়। নিয়মিত ইয়োগা করলে কোমর ও পিঠের ব্যথার মতো কোনো সমস্যা সৃষ্টি হবে না। ইয়োগা শুধু শরীরের ব্যায়ামের ওপর জোর দেয় না, আবেগ নিয়ন্ত্রণে রাখতে শেখায়।
ইয়োগা করার ফলে শরীরে প্রচুর পরিমাণে অক্সিজেন প্রবেশ করে। নার্ভস সিস্টেমের কর্মক্ষমতাও অনেকখানি বেড়ে যায়। ফলে ফুসফুস ও হৃদযন্ত্রের কার্যকর ক্ষমতা বাড়ে। ট্রেস কাটাতেও ইয়োগার বিকল্প নেই। যাদের এক জায়গায় বসে কাজ করতে হয়, তারা খুব অল্পতেই ক্লান্তি অনুভব করেন। মেজাজ খিটমিটে হয়ে যায়। তাই সকালে ইয়োগা করলে অফিসে মুড ভালো থাকে।

ডিপ্রেশনে ভুগলে যোগাসন করুন। ইয়োগা করার কোনো নির্দিষ্ট বয়সসীমা নেই। পাঁচ বছর বয়স থেকেই ইয়োগা করা যায়। ইয়োগা করার শুরুতেই এক্সপার্টের পরামর্শ নিন।


আরো সংবাদ