১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

প্রথম মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ বিজয়ী হলেন শিরিন আক্তার শিলা

-

বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ-২০১৯ খেতাব জিতে নিয়েছেন শিরিন আক্তার শিলা। শীর্ষ ১০ প্রতিযোগীর মধ্যে ০১.০১.১৯৯৯ সালে জন্ম নেয়া শিরিন আক্তার শিলা প্রথম স্থান অর্জন করেন এবং রাজধানীতে আয়োজিত এক জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এ সুন্দরী প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালেতে উপস্থিত উৎসাহী অতিথিদের সামনে বলিউড অভিনেত্রী সুস্মিতা সেন বিজয়ীকে মুকুট পরিয়ে দেন।
ঠাকুরগাঁও জেলায় জন্ম নেয়া ঢাকা ইউনিভার্সিটির ফিজিক্সের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শিরিন আক্তার শিলা নিজের সামাজিক ও কর্মজীবন সবদিকেই অনেক দূর এগিয়ে যাওয়ার স্বপ্ন দেখেন। বাংলাদেশের অন্যতম সেরা সুন্দরী, বুদ্ধিমতী, অভিজাত, মেধাবী ও আত্মবিশ্বাসী তরুণীদের বিশ্বের দরবারে তুলে ধরার প্রয়াসে দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ঢাকায় মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের আয়োজন করা হয়। মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ বিজয়ী শিরিন আক্তার শিলা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিতব্য মিস ইউনিভার্সের ৬৮তম সংস্করণটির মূল আসরে বাংলাদেশের হয়ে অংশ নেবেন।
সুস্মিতা সেন বলেন, ‘আমি এই ইভেন্টে যোগ দিতে পেরে অত্যন্ত উচ্ছ্বসিত। এটি একটি স্মরণীয় অনুষ্ঠান কারণ আমরা মিস ইউনিভার্সে বাংলাদেশের প্রথম প্রতিনিধি প্রেরণ করে ইতিহাস সৃষ্টি করতে যাচ্ছি। বিজয়ী এবং সব অংশগ্রহণকারীকে আমার আন্তরিক অভিনন্দন।’
বাংলাদেশে আয়োজিত মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতার মূল ফ্রাঞ্চাইজি ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ এবং এটি মূলত রিজ ইভেন্টস, অফ ট্রাক ও ট্রিলজি তিনটি প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে গঠিত।
রিজওয়ান বিন ফারুক, চেয়ারম্যান, মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ বলেন, ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ বিজয়ী বাংলাদেশের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে শুধু দেশেই নয়, বরং আন্তর্জাতিক মহলে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন। আগামী ডিসেম্বর মাসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হতে যাওয়া সুন্দরী বাছাই প্রতিযোগিতার আসর মিস ইউনিভার্সের ৬৮তম সংস্করণটিতে সারা বিশ্বের প্রায় ১৩০টি দেশের সুন্দরীদের সাথে প্রতিযোগিতার মঞ্চে পা রাখবেন। আমি আশা করছি, এ প্রতিযোগিতায় ‘ফ্লোরা ব্যাংক মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০১৯’- বিজয়ী শিরিন আক্তার শিলা বাংলাদেশকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তুলে ধরবেন এবং প্রমাণ করবেন বাংলাদেশী নারীরাও বিশ্বের যেকোনো দেশের নারীদের মতোই আত্মবিশ্বাসী।
আত্মবিশ্বাসী নারীদের জন্য নতুন সম্ভাবনার দ্বার খুলে দিতে গত জুলাই মাসের শেষ দিকে বাছাইপর্বে অংশ নেয়ার জন্য নিবন্ধন করার মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো যাত্রা শুরু হয়েছিল মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ-২০১৯ প্রতিযোগিতার। এ প্রতিযোগিতায় নিবন্ধনের অংশ নেয়ার জন্য সারা দেশ থেকে ১২ হাজারের অধিক অংশগ্রহণকারী নিবন্ধন করেন। পর থেকে গত তিন মাসে পর্যায়ক্রমে অডিশন রাউন্ড, গ্রুমিং, ফিল্মিং রাউন্ড ও বিভিন্ন ধাপ শেষে শুরু হয় মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব। একজন নারীর আত্মবিশ্বাসকে অগ্রাধিকার দিয়ে এবারের মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার সেøাগান ছিল ‘আমার আত্মবিশ্বাস, আমার সৌন্দর্য’।
মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ, গত ৬৭ বছর ধরে চলা বিশ্বের বৃহত্তম বিউটি পেজেন্ট প্রতিযোগিতা মিস ইউনিভার্সের ফ্র্যাঞ্চাইজি। প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালেতে সম্মানিত বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বলিউড অভিনেত্রী ও মিস ইউনিভার্স ১৯৯৪ খেতাব জয়ী সুস্মিতা সেন, গায়ক ও অভিনেতা তাহসান খান, কানিজ আলমাস, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, পারসোনা, তুতলী রহমান, সভাপতি, বাংলাদেশ হেরিটেজ ক্রাফট, রুবাবা দৌলা, পালস হেলথ কেয়ার, প্রতিষ্ঠাতা, ফারজানাহ চৌধুরী, গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড, ব্যবস্থাপনা পরিচালক; রফিকুল ইসলাম, ফ্লোরা ব্যাংক লিমিটেড, ব্যবস্থাপনা পরিচালক; ডা: জারীন দেলাওয়ার হুসেন, আতাহার আলী খান, প্রাক্তন ক্রিকেটার ও ধারাভাষ্যকার, অভিনেতা ফারুক এবং প্রাক্তন মিস ভেন্টুরা কাউন্টি ক্যালিফোর্নিয়া এবং জনসন কাউন্টি ইউএসএ।

 


আরো সংবাদ