২২ নভেম্বর ২০১৯

নাটকীয় ম্যাচে যুবাদের হার

-

সফরকারী বাংলাদেশের কাছে প্রথম তিন ম্যাচ হারের পর অবশেষে জয়ের মুখ দেখল নিউজিল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দল। গতকাল সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে কিউইরা ৪ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশের যুবাদের। এই জয়ের পরও পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৩-১ ব্যবধানে পিছিয়ে নিউজিল্যান্ড। কারণ প্রথম দুই ওয়ানডে ৬ উইকেট করে ও তৃতীয়টি ৮ উইকেটে জিতে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।
প্রথম তিন ম্যাচেই আগে ব্যাট করে ম্যাচ হেরেছিল নিউজিল্যান্ড। তাই এ ম্যাচে টস জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেয় কিউইরা। সিরিজে প্রথমবারের আগে ব্যাট করার সুযোগটা ভালোভাবে কাজে লাগায় বাংলাদেশ। ৭২ বলে ৭১ রানের জুটি গড়েন বাংলাদেশের দুই ওপেনার তানজিদ হাসান ও পারভেজ হোসেন ইমন। মারমুখী মেজাজে খেলে ৪৪ বলে ৫১ রান তুলে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন তানজিদ। নিজের ইনিংসে ৯টি চার ও একটি ছক্কা হাঁকান তিনি।
তিন নম্বরে ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি শেষ দুই ম্যাচে ৯৯ ও অপরাজিত ১০৩ রান করা মাহমুদুল হাসান জয়। ১৩ রান করেন জয়। আরেক মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান শাহাদাত হোসেনও ব্যর্থ হয়েছেন। ১২ রান করে আউট হন। এ অবস্থায় হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নিয়ে উইকেটে সেট হয়ে থাকা ওপেনার ইমনেরও বিদায় ঘটে। ফলে ১৫৬ রানে চতুর্থ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এতে রান তোলার গতিতে ভাটা পড়ে বাংলাদেশের।
তবে পঞ্চম উইকেটে ১০৪ রানের জুটি গড়ে বাংলাদেশকে বড় সংগ্রহের পথ তৈরি করে দেন দুই মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান তৌহিদ হৃদয় ও অধিনায়ক আকবর আলী। তাদের জোড়া হাফ-সেঞ্চুরিতে ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৯৫ রানের সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ। দু’টি চার ও তিনটি ছক্কায় ৭৭ বলে ৭৩ রান করেন হৃদয়।
হৃদয়ে চেয়ে মারমুখী মেজাজে ছিলেন আকবর। টি-২০ মেজাজেই ব্যাট করেছেন তিনি। আটটি চার ও ২টি ছক্কায় ৪৪ বলে ৬৬ রান করেন আকবর। নিউজিল্যান্ডের ডেভিড হ্যানকক ৭৩ রানে ৩ উইকেট নেন।
জয়ের জন্য ২৯৬ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দলীয় ৯ রানেই প্রথম উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। এরপর ১২২ রানের জুটি গড়েন ওপেনার ওলি হোয়াইট ও ফাগুস লেলম্যান। হোয়াইট ৪৫ রানে থেমে গেলেও ৭১ বলে ৭৬ রান করেন লেলম্যান। তার ৭১ বলের ইনিংসে ১০টি চার ও ২টি ছক্কা ছিল।
এরপর দলের মিডল-অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা ছোট ছোট ইনিংস খেলে ফিরলে জয়ের স্বপ্ন দেখতে থাকে বাংলাদেশ। কিন্তু বাংলাদেশের স্বপ্ন ধূলিসাৎ করে দেন অধিনায়ক জেসি তাসকফ ও আদিতিয়া অশোক। ৪৩ ওভারে দলীয় ২৪৫ রানে ষষ্ঠ উইকেটের পতন ঘটে নিউজিল্যান্ডের। সেখান থেকে ৫১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে সিরিজে নিউজিল্যান্ডকে প্রথম জয় এনে দেন তাসকফ ও অশোক। তাসকফ তিনটি চারে ৭৭ বলে ৬৬ ও অশোক ২১ বলে ২৪ নিয়ে অপরাজিত থাকেন। বাংলাদেশের আসাদুল্লাহ গালিব ৭৮ রানে ৩ উইকেট নেন।
সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডে হবে ১৩ অক্টোবর।


আরো সংবাদ