২১ নভেম্বর ২০১৯

‘ইলেভেন’ উচ্ছ্বাসে অপ্রতিরোধ্য ভারত

-

লিড ৩২৬ রানের। দ্বিতীয়বার ব্যাট করার প্রয়োজনও মনে করেনি ভারত।। বোলিং ইউনিটের সামর্থ্যে নির্ভার কোহলি লুফে নেন আফ্রিকানদের ফলোঅন লজ্জা দেয়ার সুযোগ। ভারতীয় দলনায়কের অবিচল আস্থার প্রতিদান দেয়ার চ্যালেঞ্জে প্রথম ইনিংসের দুর্দান্ত নৈপুণ্যকে পেছনে ফেলেছেন ভারতীয় বোলাররা। টানা দ্বিতীয় দিনের মতো বোলিং করার কঠিন পরীক্ষাও বাদ সাধতে পারেনি তাদের শ্রেষ্ঠ পারফরম্যান্সের প্রদর্শনীতে। স্বাগতিক বোলারদের সম্মিলিত তাণ্ডবেই ফলোঅন লজ্জার টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে হারের দুঃস্বপ্ন হজম দক্ষিণ আফ্রিকার। গতকাল পুনেতে সফরকারীদের এক ইনিংস ও ১৩৭ রানে হারিয়ে এক খেলা হাতে রেখেই টেস্ট সিরিজ জেতার উল্লাসে মাতোয়ারা ভারত। তিন ম্যাচের ট্রফি লড়াইয়ে দলটি লিড নিয়েছে ২-০ ব্যবধানে।
বিরাট কোহলির রেকর্ড রচনার ডাবলের পর আশ্বিনের ঘূর্ণি-ম্যাজিক নিশ্চিত করে দেয় দক্ষিণ আফ্রিকার ফলোঅন দুঃস্বপ্ন। তবে চতুর্থ দিনের প্রথম দুই সেশন ভারতীয়দের দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিংয়ের পক্ষেই অভিমত দেন বিশ্লেষকেরা। এ ক্ষেত্রে তিন সেশনে ৯০ দশমিক ৪ ওভার বোলিংয়ের ধকল কাটিয়ে নেয়ার জন্য করা স্বাগতিক বোলাররা প্রয়োজনীয় বিশ্রামের সুযোগও পেতেন। কিন্তু ম্যাচের চতুর্থ দিন সকালে আফ্রিকানদের ফলোঅন শঙ্কা বাস্তবে রূপান্তরের ঘোষণা দিয়ে দৃশ্যপটে উদ্ভাসিত কোহলি। তাকে মোটেও হতাশ করেনি স্বাগতিক বোলিং ইউনিট। উপরন্তু দলনায়কের আস্থার প্রতিদান দেয়ার চ্যালেঞ্জে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতীয় বোলাররা আরো বেশি বিধ্বংসী নৈপুণ্য উপহার দেন। তাদের সমন্বিত তাণ্ডবে দিশেহারা আফ্রিকানদের উইকেটে আসা-যাওয়া করেই সময় কেটেছে। হোম ভেনুতে ভারতের টানা ১১তম টেস্ট সিরিজ জয়োৎসবের নতুন রেকর্ড রচনার মুখ্য ভূমিকা রেখেছে বোলিং বিভাগের সম্মিলিত পারফরম্যান্স। পুনে টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে যাদভ-জাদেজার তিনটি করে উইকেট শিকারের উচ্ছ্বাসে ৬৭ দশমিক ২ ওভারে সফরকারীরা ১৮৯ রানে অলআউট। দলটির চারজন ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কের কোটা অতিক্রম করতে সক্ষম হন। সর্বোচ্চ ৪৮ রান করেন ডিন এলগার।
কোহলির অপ্রত্যাশিত ফলোঅন সিদ্ধান্তকে ‘পারফেক্ট’ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে দুই ডেলিভারির প্রয়োজন হয় ইশান্ত শর্মার। নতুন বলে ইনিংসের উদ্বোধনীর দায়িত্ব পালন করা ভারতীয় পেসার দ্বিতীয় বলেই সাজঘরে ফেরত পাঠান আফ্রিকার অন্যতম ওপেনার আইডেন মার্করামকে। দলীয় ২১ রানে দ্বিতীয় উইকেটের পতন সফরকারীদের খেলায় প্রত্যাবর্তন অসম্ভব করে দেয়। ফলে এলগার-বাভুমার লড়াকু ব্যাটিং শুধুমাত্র ভারতের জয়োৎসবই কিছুটা বিলম্বিত করেছে। দারুণ বোলিংয়ে ২২ রানে তিন উইকেট নেন যাদব।

 


আরো সংবাদ