২১ নভেম্বর ২০১৯

রোনালদো মেসি আছেন : বাদ নেইমার

-

২০১৯ সালের জন্য চারটি ক্যাটাগরিতে ব্যালন ডি’অরের তালিকা প্রকাশ করেছে ফ্রেঞ্চ ফুটবল ফেডারেশন। এই তালিকায় গত এক দশকের অন্যতম দুই সেরা তারকা লায়নেল মেসি ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সাথে হালের ক্রেজ ভার্জিল ফন ডিক জায়গা করে নিলেও বাদ পড়েছেন ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার ও গতবারের বিজয়ী ক্রোয়েট তারকা লুকা মড্রিচ।
সোমবার ঘোষিত ৩০ জনের এই তালিকায় বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলারের নাম না থাকাটা অনেককেই বিস্মিত করেছে। বিশ্বজুড়ে সাংবাদিকদের একটি প্যানেলের ভোটে এই তালিকা প্রস্তুত করা হয়ে থাকে। ফ্রান্স ফুটবল ম্যাগাজিনের প্রবর্তিত এই পুরস্কার ১০ বছর মেসি ও রোনালদোর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও গত ডিসেম্বরে সেই ধারা ভেঙে তা জয় করেন মাদ্রিদ তারকা মড্রিচ। ২০১৮ সালে রিয়াল মাদ্রিদ ও ক্রোয়েশিয়ার হয়ে মাঠ কাঁপানো মড্রিচ গত বছর শুধু ব্যালন ডি’অরই নয়, ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও জয় করেছিলেন।
এ দিকে বিশ্বকাপ জয়ী যুক্তরাষ্ট্র দলের তারকা স্ট্রাইকার মেগান র্যাপিনোর নাম যে এবারের নারী ব্যালন ডি’অর তালিকায় থাকবে তা অনুমেয় ছিল। গত মাসে ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কার জেতার পর এবার ব্যালন ডি’অর জয়ের ক্ষেত্রেও তাকে হট ফেবারিট মানা হচ্ছে। ২০ জনের তালিকায় তার সাথে আরো আছেন জাতীয় দলের সতীর্থ টবিন হিথ ও অ্যালেক্স মরগান। গত বছরই প্রথমবারের মতো নারীদের জন্য ভিন্ন এই পুরস্কারের আয়োজন করা হয়। প্রথমবারের বিজয়ী অ্যাডা হেগারবার্গ এবারো তালিকায় আছেন।
পিএসজি তারকা নেইমার দুইবার ব্যালন ডি’অর তালিকায় মনোনীত হলেও দু’বারই মেসি ও রোনালদোর পর তৃতীয় স্থান লাভ করেছেন। বার্সেলোনায় মেসির ছত্রছায়ায় নেইমার ২০১৫ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয় করেছিলেন। কিন্তু ২০১৭ সালে বার্সা থেকে বেরিয়ে পিএসজিতে যোগ দেয়ার পর থেকেই ধীরে ধীরে নিজেকে হারিয়ে ফেলেছেন নেইমার। ইনজুরিও অবশ্য এর পেছনে অন্যতম বড় একটি কারণ।
গত মাসে মেসি ষষ্ঠবারের মতো ফিফা বর্ষসেরার পুরস্কার জয় করেছেন। এ ক্ষেত্রে মেসি পেছনে ফেলেছিলেন লিভারপুলের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বিজয়ী দলের অধিনায়ক ভার্জিল ফন ডিককে। ২০০৬ সালে ইতালির বিশ্বকাপ বিজয়ী অধিনায়ক ফ্যাবিও ক্যানাভারোর পর প্রথম ডিফেন্ডার হিসেবে ফন ডিক বিশ্বসেরাদের তালিকায় মনোনীত হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছেন। লিভারপুরের এই সেন্টার ব্যাকের সাথে সতীর্থ হিসেবে এই তালিকায় রয়েছেন আরো সাতজন। যাদের মধ্যে গোলরক্ষক অ্যালিসন বেকার ও ফরোয়ার্ড রবার্তো ফিরমিনো অন্যতম। বেকার ও ফিরমিনো এবারের কোপা আমেরিকা বিজয়ী ব্রাজিল দলেরও সদস্য ছিলেন।
এ দিকে পুনর্জাগরিত নেদারল্যান্ড দলের পাঁচজন এই তালিকায় রয়েছেন। এর মধ্যে ফন ডিকের সাথে তার রেডস সতীর্থ জর্জিনিও উইজনালডাম অন্যতম। ১৯৯২ সালে সর্বশেষ ডাচ খেলোয়াড় হিসেবে এই পুরস্কার জয় করেছিলেন মার্কো ফন বাস্তেন। ছয়জন শক্তিশালী আফ্রিকানও রয়েছেন মনোনীতদের তালিকায়, যাদের মধ্যে অন্যতম হলেন লিভারপুল ফরোয়ার্ড সাদিও মানে, মোহাম্মদ সালাহ ও নেপোলি ডিফেন্ডার কালিডু কোলিবেলি। একমাত্র এশিয়ান খেলোয়াড় হিসেবে এই তালিকায় স্থান পেয়েছেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালিস্ট টটেনহ্যামের দক্ষিণ কোরিয়ান ফরোয়ার্ড সং হেয়াং-মিন। আগামী ২ ডিসেম্বর প্যারিসে এ বছরের ব্যালন ডি’অর বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে।

 


আরো সংবাদ