১২ ডিসেম্বর ২০১৯

  ওমানের ম্যাচ ভিডিও দেখে অনুশীলন

-

আগামী পরশু ২০২২ কাতার বিশ^কাপে ওমান এবং বাংলাদেশ ম্যাচ। মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির রাজধানী মাসকাটে অনুষ্ঠিতব্য এই ম্যাচ দুই দলের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ। গ্রুপে শীর্ষস্থান পাওয়ার লড়াইয়ে থাকতে ওমানকে জিততে হবে এই ম্যাচে। অন্য দিকে পাঁচ নাম্বার স্থান থেকে এক লাফে তৃতীয় স্থানে পৌঁছাতে বাংলাদেশেরও জয় জরুরি। ‘ই’ গ্রুপে তিন ম্যাচে দুই জয় আর এক ড্রতে ছয় পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ওমান। চার খেলায় তিন জয় আর এক ড্রতে ১০ পয়েন্ট কাতারের। শীর্ষে তারাই। তিন ম্যাচে জয় শূন্য বাংলাদেশের পয়েন্ট এক। তারা আছে পাঁচ নাম্বারে। সমান ম্যাচে তিন আর দুই পয়েন্ট যথাক্রমে আফগানিস্তান এবং ভারতের।
ওমান প্রথম ম্যাচে পিছিয়ে থেকেও শেষ সময়ের গোলে ২-১ এ হারায় ভারতকে। পরের ম্যাচে তাদের ৩-০ গোলের জয় আফগানিস্তানের বিপক্ষে। অবশ্য সর্বশেষ ম্যাচে তাদের ১-২ গোলে হার কাতারের কাছে। ফিফা র্যাংকিংয়ে জামাল ভূঁইয়াদের চেয়ে একশত ধাপ এগিয়ে ওমান। তাদের অবস্থান ৮৪তে । আর বাংলাদেশ আছে ১৮৪তে। এর পরও বাংলাদেশ দল স্বপ্ন দেখছে ১৪ নভেম্বর ভালো কিছু করার। বিশেষ করে গত তিন ম্যাচে তাদের উজ্জ্বল পারফরম্যান্স আশাবাদী হওয়ার মতোই। বাংলাদেশ দলের সহকারী কোচ মাসুদ পারভেজ কায়সারের কণ্ঠে সেই ভালো করার প্রত্যয়। কাল তিনি জানান, আমরা ওমানের ম্যাচের ভিডিও দেখে ফুটবলারদের অনুশীলন করাচ্ছি। ওদের শক্তিশালী দিক এবং দুর্বল দিকগুলোর খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ করে সে মোতাবেক অনুশীলন করনো হচ্ছে জাতীয় দলকে। আমরা আশা করি ভালো কিছুই হবে আগামী ম্যাচে। কায়সার যোগ করেন, আমরা ৪ নভেম্বর থেকে ওমানে অবস্থান করছি এখানকার আবহওয়ার সাথে মানিয়ে নেয়ার জন্য। একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে জয়ও তাতে।
ডিফেন্ডার টুটুল হোসেন বাদশা ইনজুরি কাটিয়ে ফিরেছেন। এখন তিনি পুরোপুরি প্রস্তুত ম্যাচ খেলার জন্য। তার মতে, ‘ওমান অনেক শক্তিশালী দল। তাদের আক্রমণভাগ বেশ ভালো। আমি চেষ্টা করব সেরাটা দিয়ে বাংলাদেশ দলকে রক্ষা করতে।’


ঢাকা আবাহনীর এই স্টপার ব্যাকের মতে, ওমানে প্রচুর বাংলাদেশ থাকেন। তারা আসবেন ম্যাচ দেখতে। এই প্রবাসীরা আমাদের জন্য প্রেরণা। ঢাকায় আমাদের কাতারের বিপক্ষে ভালো খেলার নেপথ্য ছিল গ্যালারি ভর্তি দর্শক।

 


আরো সংবাদ