২৪ জানুয়ারি ২০২০

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে রেসে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ১(সুফিল)-০ শ্রীলঙ্কা
-

এখনো আরো দুই ম্যাচ বাকি। সাথে ‘যদি’ নির্ভরতা। এর পরও মনে হচ্ছে ১৯৯৯ সালের কাঠমান্ডু সাফ গেমসের পুনরাবৃত্তিই যেন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। সেবার যে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে লাল-সবুজ ফুটবল দলের ঘরে দাঁড়ানো এবারো আপাতত সেটার অনুরূপ। এসএ গেমস পুরুষ ফুটবলে ফাইনালে খেলার আশা জিইয়ে রাখতে গতকাল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয়ের বিকল্প ছিল না জেমি ডে বাহিনীর। কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে সেই জয়ই পেল জামাল ভূঁইয়ার নেতৃত্বাধীন দল। শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে বাংলাদেশ এখন তলানিতে থেকে এক লাফে চলে এসেছে পয়েন্ট তালিকার তৃতীয় স্থানে। কাল অন্য ম্যাচে ভুটান ২-১ গোলে মালদ্বীপকে হারিয়ে চলে গেছে শীর্ষে। তাদের পয়েন্ট তিন ম্যাচে ছয়। চার পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেপাল। তিন ম্যাচে বাংলাদেশেরও পয়েন্ট চার। তারা অবশ্য নেপালের চেয়ে একটি ম্যাচ বেশি খেলেছে। মালদ্বীপ ও শ্রীলঙ্কার পয়েন্ট দুই করে। এই পাঁচ দলের শীর্ষ দুই দল ১০ ডিসেম্বরের ফাইনালে খেলবে। আগামীকাল নেপালের প্রতিপক্ষ মালদ্বীপ। আর ভুটানের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশকে ফাইনালে যেতে হলে এখন ৮ ডিসেম্বর নেপালের বিপক্ষেও জিততে হবে।
১৯৯৯ সালে এসএ গেমস ফুটবলে সামির সাকিরের বাংলাদেশ দল প্রথম ম্যাচেই ১-২ গোলে হেরে বসে মালদ্বীপের কাছে। এই শ্রীলঙ্কাকেই পরের ম্যাচে হারিয়েই রেসে ফেরে জুয়েল রানার দল। পরের দুই ম্যাচে ভারত ও নেপালকে ১-০ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনাল ও ফাইনাল জয়। সাফ গেমসের ইতিহাসে প্রথম বারের মতো ফুটবলে স্বর্ন পদক গলায় তোলার ইতিহাস। এবার অনূর্ধ্ব-২৩ দলকে সেই স্মৃতির পুনরাবৃত্তি করতে হলে এখন সোজা পরের দুই খেলায় জিততে হবে। এরপর তাকিয়ে থাকতে হবে অন্যদের দিকে। তবে আগে করতে হবে নিজেদের কাজ।
কাল একাদশে তিন পরিবর্তন এনে দল মাঠে নামান কোচ জেমি ডে। এদের মধ্যে স্ট্রাইকার নাবিব নেওয়াজ জীবনের বদলে মাহাবুবুর রহমান সুফিল। ১১ মিনিটে বসুন্ধরা কিংসের এই ফরোয়ার্ডের গোলেই এগিয়ে যায় লাল-সবুজরা। বক্সে সাদ উদ্দিনের কাটব্যাক থেকে বল পেয়ে ডান পায়ে মাটি ঘেঁষা শট নেন সুফিল। সে বল লঙ্কার ডিফেন্ডারের পায়ে গেলে গোল লাইন অতিক্রম করে। এরপরই বাংলাদেশ হারায় ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ। রবিউলের দুর্বল শট চলে যায় গোলরক্ষকের হাতে। ৩৫ মিনিটে জামালের থ্রু পাস থেকে বিশ^নাথ কাট ব্যাক না করে নিজে গোলে শট নিয়ে তা মারেন বাইরে। অবশ্য পিছিয়ে পড়ার পরই তিনবার সমতার সুযোগ পেয়েছিল শ্রীলঙ্কা। গোলরক্ষক জিকো প্রতিহত করেন একটি ফ্রি-কিক। আরো দু’টি শট অল্পের জন্য বাইরে যায়।
বিরতির পরও বাংলাদেশ দলের দাপট মাঠে। তবে ভয় হচ্ছিল শ্রীলঙ্কা যেভাবে শেষ সময়ে ড্র করেছিল নেপালর সাথে গত ম্যাচে তেমন কিছু না হয়ে বসে। তার আর হয়নি রক্ষণভাগ এবং মিডফিল্ড সচেতন থাকায়। তবে ৭২ মিনিটে সুফিলের বদলী জীবন মাঠে নেমে দু’বার বঞ্চিত করেন দলকে। একবার ঠিকমতো ক্রস করতে ব্যর্থ। পরের বার শট না নিয়ে পাস দিয়ে গিয়ে গোল মিস।
পয়েন্ট তালিকা
দ খে জ ড্র পরা গো প
ভুটান ৩ ২ ০ ১ ৩/৫ ৬
নেপাল ২ ১ ১ ০ ৫/১ ৪
বাংলাদেশ ৩ ১ ১ ১ ২/২ ৪
মালদ্বীপ ৩ ০ ২ ১ ২/৩ ২
শ্রীলঙ্কা ৩ ০ ২ ১ ১/২ ২০ু

 


আরো সংবাদ