২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ফিলিস্তিনের দ্বিতীয় না বুরুন্ডির প্রথম

-

তিন ম্যাচের প্রতিটিতেই বড় জয় বুরুন্ডির। অন্য দিকে ফাইনালে আসার পথে সব ম্যাচেই ধুঁকতে হয়েছে ফিলিস্তিনকে। তাই আজ বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের ফাইনালে ফেবারিটের তালিকায় আফ্রিকান দেশটিই। যদিও র্যাংকিং এগিয়ে রাখছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিকে। আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নও তারা। আজ ট্রফিতে হাত ছোঁয়ালে তা হবে এই টুর্নামেন্টে ফিলিস্তিনের দ্বিতীয় শিরোপা জয়। অন্য দিকে বুরুন্ডি জিতলে তা হবে নিজ অঞ্চলেল বাইরে তাদের প্রথম চ্যাম্পিয়ন হওয়া। সে সাথে এশিয়ান গণ্ডি পেরিয়ে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ যাবে আফ্রিকাতে। বিকেল ৪টায় বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে আজ এই ফাইনাল। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
দফায় দফায় গণহত্যায় ফুটবলের মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে বুরুন্ডিতে। তাই তাদের ফুটবলে নেই বড় কোনো সাফল্য। ১৯৯৫ সালে আফ্রিকান যুব ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনালে যাওয়াটাই তাদের বড় সাফল্য। আর সর্বশেষ আফ্রিকান নেশন্স কাপ এবং অলিম্পিক গেমস বাছাই এ আফ্রিকান অঞ্চলের চূড়ান্ত পর্বে খেলা দল তাই আজ চ্যাম্পিয়ন হয়ে গড়তে চায় ইতিহাস। এমনটাই জানালেন কোচ বিপুভুসা। ‘ফিলিস্তিন দল টেকনিক্যালি ভালো হলেও তার পূর্ণ আত্ম বিশ্বাস আজ জেতার ব্যাপারে।’ বলেন তিনি। ফিলিস্তিন সেমিফাইনালে সেশেলসের বিপক্ষে ন্যূনতম ব্যবধানে জিতলেও আজ পরিস্থিতি ভিন্ন জানান তিনি। যোগ করেন, ‘যদি চ্যাম্পিয়ন হতে পারি তাহলে সেটা হবে দেশের ফুটবলে প্রথম ট্রফি জয়। যদিও ম্যানেজার কনস্টান্টিন মোতেম্বা তথ্য দিলেন, আমাদের একটি ট্রফি আছে আঞ্চলিক পর্যায়ে।
এ দিকে ফিলিস্তিন কোচ দাবুব মাকরাম উল্লেখ করেন, ‘আমরা ফিলিস্তিনি জনগণকে আরেকটি ট্রফি উপহার দিতে চাই।’ সেশেলসের বিপক্ষে সেমিতে কষ্টার্জিত জয় সম্পর্কে মন্তব্য, ‘সে দিন সেশেলস ডিফেন্সিভ খেলেছিল। কিন্তু ফাইনালে প্রেক্ষাপট ভিন্ন। প্রতিপক্ষ বুরুন্ডি। আশা করি লড়াইটা জমজমাট হবে।’


আরো সংবাদ