২২ আগস্ট ২০১৯

আমাকে ভোট দিন, না হলে অভিশাপ দেবো : বিজেপি প্রার্থী

ভারতীয় লোকসভা নির্বাচনে বিতর্কিত বিজেপি প্রার্থী সাক্ষী মহারাজ - সংগৃহীত

ভারতে চলমান লোকসভা নির্বাচনের গণসংযোগ ও প্রচারণায় গিয়ে ভোট না দিলে ভোটারদের ‘অভিশাপ’ দেয়ার হুমকি দিয়েছেন বিজেপি প্রার্থী সাক্ষী মহারাজ। এই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার উত্তর প্রদেশের সোহরামউ থানা এলাকার শেষপুরে এক নির্বাচনী সমাবেশে ভাষণ দেয়ার সময় ভোট না দিলে উপস্থিত ভোটারদের ‘অভিশাপ’ দেয়ার হুঁশিয়ারি দেন বিজেপি প্রার্থী সাক্ষী মহারাজ।

এ বিষয়ে তীব্র বিতর্ক সৃষ্টির পর স্থানীয় নগর ম্যাজিস্ট্রেট রাকেশ কুমার গুপ্তা বলেন, বিজেপি প্রার্থী সাক্ষী মহারাজের মন্তব্য গুরুত্ব সহকারে নিয়ে তার বিরুদ্ধে সোহরামউ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বিজেপি সংসদ সদস্য ও দলীয় প্রার্থী সাক্ষী মহারাজ বলেন, আমি একজন সাধু। শাস্ত্রে লেখা আছে যে, কোনো সন্ন্যাসীর ইচ্ছাপূরণ না করলে, তিনি সব ভালো জিনিস নিয়ে চলে যান আর তার পরিবর্তে ‘পাপ’ দিয়ে যান। ফলে তাকে ভোট না দিলে উন্নাওয়ের ভোটারদের পাপিষ্ঠ হতে হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, আমি একজন সন্ন্যাসী, আপনারা আমাকে জেতালে আমি জিতব। তা না হলে মন্দিরে ভজন-কীর্তনে সময় কাটাব। কিন্তু আজ আমি এখানে এসেছি আপনাদের ভোট প্রার্থনা করতে। আমি আপনাদের দরজায় এসে ভোট ভিক্ষা করছি। কিন্তু সন্ন্যাসীকে আপনি ফিরিয়ে দিলে আপনার পরিবারের সুখ আমি ছিনিয়ে নেব এবং আপনাকে অভিশাপ দেবো।

সাক্ষী মহারাজের দাবি, তিনি যা বলেছেন তা শাস্ত্রে বলা হয়েছে। তিনি তার কথাকে ন্যায্য বলে অভিহিত করে বলেন, তিনি ধন-সম্পত্তি চাননি। লোকেদের কাছে ভোট চেয়েছেন মাত্র, যার ফলে দেশবাসীর ভাগ্য পরিবর্তন হবে।

সাক্ষী মহারাজের অভিশাপ দেয়ার হুমকি সম্বলিত মন্তব্য গণমাধ্যমে প্রকাশ্যে আসার পরেই প্রশাসনিক কর্তৃপক্ষ নড়েচড়ে বসেছে। তার বিরুদ্ধে নির্বাচনে অযৌক্তিক প্রভাব সৃষ্টির অভিযোগে ওই এলাকার থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। সূত্র : পার্স টুডে।

আরো পড়ুন : বিজেপিকে ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করতে দেওয়া হবে না: মমতা

এদিকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, বাংলার মাটিতে বিজেপিকে ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করতে দেওয়া হবে না। শনিবার দার্জিলিংয়ে এক নির্বাচনি সমাবেশে তিনি এমন হুঁশিয়ারি দেন।

মমতা বলেন, বিজেপি ধর্ম নিয়েই নোংরা রাজনীতি করছে। মানুষকে বিপথগামী করতেই তাদের এই চেষ্টা। আর নির্বাচনের সময় এটাকে বাংলার মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরির কাজে ব্যবহার করছে। ওদের বয়কট করুন। বাংলার মানুষ বিজেপির হিংসার রাজনীতিকে সমর্থন করে না।

মমতা বলেন, বিজেপি তরবারি নিয়ে মিছিল করছে, কার গলা কাটতে চায় ওরা? আমি থাকতে এ বাংলায় কারও গলা কাটতে দেব না। যা পাচ্ছে সেই অস্ত্র নিয়েই মিছিল করছে! লাঠি দিয়ে কার মাথা ভাঙতে চায় ওরা? অত সহজ? বড় বড় কথা বলছে! বাংলায় এনআরসি (নাগরিকপঞ্জি) চালু করবে! কেন্দ্র থেকে উৎখাত করে দিন ওদের! ভাবছে বাংলা দখল করবে!

বিজেপি প্রধান অমিত শাহের মুসলিম অভিবাসীদের বিতাড়িত করার একদিন পরই এর পাল্টা বক্তব্য দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা।
বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গে এক সমাবেশে অমিত শাহ বলেন, ভারতের মুসলমান অভিবাসীদের বঙ্গোপসাগরে ছুড়ে ফেলা হবে। বিজেপি প্রধান বলেন, অনুপ্রবেশকারীরা বাংলার মাটিতে উঁইপোকার মতো। বিজেপি সরকার তাদের এক এক করে তুলে বঙ্গোপসাগরে ছুড়ে ফেলবে।


আরো সংবাদ

পুরুষ এডিস মশাকে বন্ধ্যা করতে ঢাকায় বিদেশী বিশেষজ্ঞ নিজ দলের নেতাকে হত্যাচেষ্টা মামলায় যুবলীগ নেতা কারাগারে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে ছাত্রীর সাথে অশ্লীলতা, শ্রীঘরে অধ্যক্ষ সাতক্ষীরায় ডেঙ্গুজ্বরে মাদরাসা ছাত্রের মৃত্যু গুড়িগুড়ি বৃষ্টিতে বজ্রপাত, মাঠে পড়ে রইল কৃষকের লাশ দাম্পত্য জীবনে কোনো কলহ না হওয়ায় স্বামীকে তালাক দিতে চান স্ত্রী পোষ্টের নীচে রানাতেই আস্থা জেমি ডে’র জামালপুরে টর্নেডোতে উড়িয়ে পিলারের ধাক্কা, কৃষকের মৃত্যু ভুটানকে হারানোই বাংলাদেশের লক্ষ্য ৪ বছরের শিশুকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে আদালতের গাড়িচালক গ্রেফতার রিফাতহত্যা : ৩ সেপ্টেম্বর চার্জশিট দাখিলের দিন ধার্য

সকল