২৫ আগস্ট ২০১৯

‘গোঁফ চুরি’ নিয়ে হইচই, যুবককে বয়কট নাপিতদের

‘গোঁফ চুরি’ নিয়ে হইচই, যুবককে বয়কট নাপিতদের - ছবি : সংগৃহীত

গোঁফের আমি, গোঁফের তুমি। গোঁফ দিয়ে যায় চেনা! কবি মজা করে এই কথা বললেও বিষয়টি অনেকাংশে সত্যি। মুখ ও নাকের মাঝে ‘গোঁফ’ না থাকলে অনেক সময় চেনা ব্যক্তিকে চিনতে অসুবিধা হয়। আর সেই গোঁফ যদি না জানিয়ে কেউ কেটে দেয়। তাহলে নাপিতের নামে এফআইআরও দায়ের করতে পারে খদ্দের! শুনতে অবাক লাগলেও এইরকমই একটি ঘটনা ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের কানহান এলাকায়।

সম্প্রতি ওই এলাকার একটি সেলুনে চুল-দাড়ি কাটতে গিয়েছিলেন ৩৫ বছরের কিরণ ঠাকুর। কিন্তু, সেই দোকানের মালিক সুনীল লকশনে তাকে না জানিয়ে তার গোঁফ কেটে দেন বলে অভিযোগ। পরে বাড়িতে গিয়ে সুনীলকে ফোন করে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চান কিরণ। কিন্তু, সেসময় সুনীল তাকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে বলে অভিযোগ। এরপর ওই নাপিতের বিরুদ্ধে নাগপুর থানায় জামিন অযোগ্য ধারায় এফআইআর করেন কিরণ।

বিষয়টি জানতে পেরে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন স্থানীয় নাপিতরাও। তাদের সংগঠন নাভিক একতা মঞ্চের তরফে কিরণকে বয়কটের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এলাকার প্রতিটি সেলুনে যাতে কিরণকে ঢুকতে না দেয়া হয় তার নির্দেশ দেয়া হয়।

এপ্রসঙ্গে নাভিক একতা মঞ্চের সভাপতি শরদ ওয়াটকর জানান, “লকশনের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ মিথ্যে ও ভিত্তিহীন। গোঁফ কাটার আগে ওই যুবককে জিজ্ঞাসা করেছিল সুনীল। এবং গোঁফ কাটার পরে সে বাড়িও চলে গিয়েছিল। কিন্তু, সন্ধেবেলা সুনীলের দোকানে এসে ভাঙচুর চালায়। তাই ওই যুবকের বিরুদ্ধেও পালটা অভিযোগ জানানো হয়েছে। পাশাপাশি আমাদের সংগঠনের মিটিংয়ে মিথ্যে অভিযোগ জানানোর জন্য তাকে বয়কট করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সোমবার বিষয়টি নিয়ে কানহান মোড়ে একটি পদসভাও করা হবে।”
সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন


আরো সংবাদ