২০ আগস্ট ২০১৯

বিজেপিতে যোগ দিলেন কলকাতার সাবেক মেয়র

বিজেপিতে যোগ দিলেন কলকাতার সাবেক মেয়র - ছবি : সংগৃহীত

কলকাতা পৌর করপোরেশনের সাবেক মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় বুধবার বিকেলে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। শোভন ছিলেন পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসদলীয় মেয়র। তিনি এক সময় তৃণমূল নেত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ নেতা ছিলেন।

বেশ কিছুদিন ধরে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে তৃণমূলের বনিবনা হচ্ছিল না। শোভন চট্টোপাধ্যায় বিধায়ক ছিলেন। ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রীও। রাজ্যের তিনটি দপ্তর সামলিয়েছেন তিনি। তৃণমূলের সাথে বনিবনা না হওয়ায় তিনি এর আগে মন্ত্রিত্ব এবং কলকাতার পৌর করপোরেশনের মেয়র পদ ছেড়ে দেন।


শোভনের বন্ধু অধ্যাপিকা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ও বুধবার বিজেপিতে যোগদান করেন। বৈশাখী ছিলেন তৃণমূলের অধ্যাপক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক। বর্তমানে তিনি মিল্লি আল আমিন কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান হিসেবে কর্মরত আছেন।

বুধবার বিকেলে দিল্লির বিজেপির সদর দপ্তরে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে শোভন এবং বৈশাখী যোগ দেন বিজেপিতে। যোগদানের সময় শোভন এবং বৈশাখীকে উত্তরীয় পরিয়ে দেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় কার্যকরী সভাপতি জেপি নাড্ডা, পশ্চিমবঙ্গের সহকারী পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন, বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা মুকুল রায় প্রমুখ।

শোভন-বৈশাখীর বিজেপিতে যোগদানের পরই মুকুল রায় সাংবাদিকদের বলেন, সামনের বছর কলকাতা পৌর করপোরেশনের নির্বাচনে বিপুল ভোটে জিতবে বিজেপি। আর আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল এই রাজ্যে বিরোধী দলের মর্যাদাও পাবে না। আর শোভন চট্টোপাধ্যায় বলেন, পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূল যেভাবে বিরোধীদের ভোট হরণ করেছে, মনোনয়নপত্র জমা দিতে বাধা দিয়েছে, ভোটদানে বাধা দিয়েছে তা আমার কাছে খারাপ লেগেছে। তখন থেকে তৃণমূলের ওপর আমার ক্ষোভ জন্মে। আর লোকসভা নির্বাচনে মজবুত ভারত গড়ার লক্ষ্য নিয়ে অমিত শাহ- মোদি যে ভাবে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন তাতে আমি মুগ্ধ হয়েছি। আমি বুঝেছি বিজেপি দেশ শাসন করতে হবে বড় শক্তি। তাই আমি বিজেপিতে যোগদান করেছি।

 


আরো সংবাদ