২০ নভেম্বর ২০১৯

শিগগিরই ছাড়া পাচ্ছেন না ফারুক আবদুল্লাহ

-

ভারতের বিতর্কীত জননিরাপত্তা আইনে(পিএসএ) গ্রেফতার দেখানো হয়েছে কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহকে। যার ফলে দুই বছর বা তারও বেশি সময় পর্যন্ত বিনা বিচারে বন্দী থাকতে হতে পারে তাকে। এক রিপোর্টে একথা জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

জম্মু ও কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী, বর্তমান রাজ্যসভা সদস্য, ন্যাশনাল কনফারেন্স (এনসি) নেতা ফারুক আবদুল্লাহকে গ্রেফতার করেছে ভারতীয় নিরাপত্তাবাহিনী। জননিরাপত্তা আইনে (পিএসএ) রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে গত ৫ আগস্ট থেকে কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহকে গৃহবন্দী করে রেখেছিল ভারত সরকার। দীর্ঘদিন গৃহবন্দী করে রাখার পর রোববার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

কাশ্মিরের রাজধানী শ্রীনগরের বাসায় গত ৫ আগস্ট থেকে গৃহবন্দী থাকার পর রোববার ফারুক আবদুল্লাহকে গ্রেফতার দেখিয়েছে ভারতীয় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। কাশ্মিরের বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবরে বলা হয়েছে, তার বন্দীঅবস্থাকে জননিরাপত্তা আইনের অধীনে নেয়া হয়েছে। এই আইনের অধীনে যে কোন লোককে বিনা বিচারে দুই বছর পর্যন্ত বন্দী রাখা যায়। তারপর শুরু হতে পারে তার বিরুদ্ধে করা মামলা বিচার।

কাশ্মির প্রশাসনের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ফারুক আবদুল্লার বাসভবনকে সাব-জেল ঘোষণা করা হয়েছে। তাই তাকে আর অন্য কোন জেলখানায় নেয়ার প্রয়োজন নেই। এই বন্দী সময়ে তিনি বাড়ির বাইরে যেতে পারবেন না তবে বাড়িতে আসা আত্মীয়-স্বজনদের সাথে দেখা করত পারবেন না।


আরো সংবাদ