১১ ডিসেম্বর ২০১৯

৪ ভারতীয়কে জাতিসঙ্ঘের সন্ত্রাসী তালিকাভূক্ত করবে পাকিস্তান

ইমরান খান - ফাইল ছবি

আফগানিস্তানে কর্মরত চার ভারতীয় নাগরিককে জাতিসঙ্ঘের সন্ত্রাসবাদী তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করতে পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে পাকিস্তান। এই ইস্যুতে তাদের পাশে আছে চীন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ইতোমধ্যেই ওই চার জনকে আফগানিস্তান থেকে দেশে ফিরিয়ে নিয়েছে ভারতীয় গোয়েন্দারা। এদের মধ্যে সর্বশেষ জনকে গত ১৮ নভেম্বর ভারতে ফিরিয়ে নিতে সক্ষম হয়েছে ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাতে এই খবর প্রকাশ পেয়েছে সংবাদমাধ্যমে। এই চার জন ভারতীয় হলেন অন্ধ্র প্রদেশের আপ্পাজি আংগারা, ওড়িষ্যার গোবিন্দ পট্টনায়েক দুগ্গিভালাসা, অজয় মিস্ত্রি ও বেণুমাধব ডোংগারা।

কাবুলের একটি ব্যাংকে সফটওয়্যার ডেভলপার হিসেবে কাজ করতেন আপ্পাজি আংগারা। তার বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে লাহোরের মল রোডে সন্ত্রাসবাদী হামলার অভিযোগ আছে। এছাড়া পেশোয়ারে দুটি বোমা হামলায় তার জড়িত থাকার অভিযোগও আছে। তার বিরুদ্ধে পেশোয়ারে মামলাও হয়েছে। জামাত উল আহরার নামে একটি সংগঠনের যোগসাজশে এই হামলা করা হয়।

গোবিন্দ পট্টনায়েকের বিরুদ্ধে বালুচিস্তানে পাক রাজনীতিক সিরাজ রাইসানির ওপর হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। ওই হামলা ১৬০ জন নিহত হয়েছিল। তাকে সন্ত্রাসী হিসেবে চিহ্নিত করে দুটি মামালাও হয়েছে বালুচিস্তানে। তিনি আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে ফনিক্স কনসাল্টিং নামের একটি কোম্পানিতে কাজ করতেন।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো বলছে, পাকিস্তানের জইশ-ই-মুহাম্মদ প্রধান মাসুদ আজহারকে জাতিসঙ্ঘের সন্ত্রাসবাদী তালিকায় ঢোকাতে সক্ষম হয়েছে ভারত। এবার পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে চার ভারতীয়কে এই তালিকায় ঢোকাতে চেষ্টা করছে পাকিস্তান।

জাতিসঙ্ঘের ১২৬৭ নম্বর প্রস্তাবে আল কায়দার ওপর নিষেধাজ্ঞা বিষয়ক যে কমিটি রয়েছে সেখানে পাকিস্তান তাদের বিষয়ে অভিযোগ দাখিল করেছে। ইমরান খানের সরকারের এই তৎপরতার পরই ভারত দ্রুত এই নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে নেয়।


আরো সংবাদ

সকল